টিসিবির জন্য এর আগে গত ১৯ অক্টোবর ৩৪৮ কোটি টাকা ব্যয়ে ১ কোটি ৬৫ লাখ লিটার সয়াবিন তেল এবং ৮ হাজার টন মসুর ডাল কেনার প্রস্তাবও অনুমোদন করেছিল ক্রয় কমিটি। এর এক মাস আগে গত ২১ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত ক্রয় কমিটির বৈঠকেও টিসিবির মাধ্যমে দেশীয় তিন কোম্পানি থেকে ১ কোটি ৬৫ লাখ লিটার সয়াবিন তেল কেনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ফ্যামিলি কার্ডের মাধ্যমে টিসিবি যে সাশ্রয়ী দামে সয়াবিন ও ডাল বিক্রি করছে, সে উদ্দেশ্যেই এগুলো কেনা হচ্ছে।

সাইদ মাহবুব খান সাংবাদিকদের জানান, টিসিবির জন্য স্থানীয়ভাবে উন্মুক্ত দরপত্র পদ্ধতিতে ৫৫ লাখ লিটার সয়াবিন তেল কিনবে সরকার। কেনা হবে সুপার অয়েল রিফাইনারি লিমিটেডের কাছ থেকে। এতে খরচ হবে ৮৯ কোটি ৬১ লাখ ৭০ হাজার টাকা। প্রতি লিটার সয়াবিনের দাম পড়বে প্রায় ১৬৩ টাকা। আগে প্রতি লিটারের দাম ছিল প্রায় ১৭২ টাকা।

এ ছাড়া আট হাজার টন মসুর ডালও কেনা হবে উন্মুক্ত দরপত্র পদ্ধতিতে। এতে খরচ হবে ৬৮ কোটি ৭৯ লাখ টাকা। প্রতি কেজির দাম পড়বে ৮৬ টাকা। প্রতি কেজি ডালের দাম আগে ছিল ৮৮ দশমিক ৭৩ টাকা।

এদিকে কাতার ও আরব আমিরাত থেকে ৯০ হাজার টন ইউরিয়া এবং দেশীয় এক প্রতিষ্ঠান থেকে ২৫ হাজার টন রক ফসফেট কেনার প্রস্তাবও অনুমোদিত হয় ক্রয় কমিটির বৈঠকে। এতে খরচ হবে ৬৮৪ কোটি ৬৩ লাখ টাকা।

বৈঠকে ২৬৩ কোটি ২১ লাখ টাকা ব্যয়ে পুরাতন ব্রহ্মপুত্র, ধরলা, তুলাই ও পুনর্ভবা নদ-নদীর নাব্যতা উন্নয়ন এবং পুনরুদ্ধার প্রকল্পের খননকাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এ কাজ করবে ৯টি প্রতিষ্ঠান।

এ ছাড়া ক্রয় কমিটির বৈঠকে রংপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নভোথিয়েটার করার প্রস্তাব অনুমোদিত হয়। এতে ১২১ কোটি ১৭ লাখ টাকা ব্যয় হবে। কাজ পেয়েছে এমজি জামাল অ্যান্ড কোম্পানি লিমিটেড।