কাস্টমস সূত্রে জানা গেছে, জুলাই মাসে ৪ হাজার ৪৮২ কোটি টাকা রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল। এর বিপরীতে আদায় হয়েছে ৪ হাজার ৮৩৮ কোটি ৫১ লাখ টাকা। লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ৩৫৬ কোটি ৫১ লাখ টাকা বেশি রাজস্ব আদায় হয়েছে। গত বছরের জুলাই মাসে ৩ হাজার ৩৯৪ কোটি টাকা রাজস্ব আদায় হয়েছিল।

চট্টগ্রাম কাস্টমসের যুগ্ম কমিশনার মো. সালাহউদ্দিন রিজভী প্রথম আলোকে বলেন, আমদানি পণ্যের যথাযথ শ্রেণীকরণ কোড (এইচএস কোড) ও মূল্যে শুল্কায়নের ফলে রাজস্ব আদায়ে ইতিবাচক প্রবৃদ্ধি অর্জন সম্ভব হয়েছে। সামনের দিনগুলোতেও রাজস্ব আহরণের ইতিবাচক ধারা অব্যাহত থাকবে।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের পর পণ্য আমদানি কমে যায়। তবে আমদানি কমলেও ডলারের বিনিময়মূল্য বৃদ্ধির কারণে পণ্যমূল্য বেড়েছে আর সে কারণে শুল্ক–কর আদায়ও বৃদ্ধি পেয়েছে।

দেশে আমদানি পণ্যের ৭৮ শতাংশই চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে হয়। চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে আমদানি হওয়া পণ্যের ৯৫ শতাংশই শুল্কায়ন করে চট্টগ্রাম কাস্টমস। সারা দেশের কাস্টমস স্টেশনের মধ্যে সবচেয়ে বেশি শুল্ক-কর আদায় করে চট্টগ্রাম কাস্টমস। গত অর্থবছরে চট্টগ্রাম কাস্টমস ৫৯ হাজার ২৫৬ কোটি টাকা রাজস্ব আদায় করেছে।

বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন