default-image


ইস্টার্ণ ব্যাংক ছেড়েছেন অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাসান ও. রশীদ। প্রাইম ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) হিসেবে তিনি যোগদান করেছেন। রাহেল আহমেদ প্রাইম ব্যাংক ছাড়ার পর এত দিন ব্যাংকটির এমডি পদ শূন্য ছিল। প্রাইম ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ যোগ্য এমডির খোঁজ করছিল। শেষ পর্যন্ত হাসান ও. রশীদকে বেছে নিয়েছে তানজিল চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন প্রাইম ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ।

প্রাইম ব্যাংক নিয়ে হাসান ও. রশীদের লক্ষ্য-উদ্দেশ্য জানতে চাইলে তিনি প্রথম আলোকে বলেন, প্রাইম ব্যাংকের যে সুনাম আছে, সব কর্মীকে সঙ্গে নিয়ে তা আরও এগিয়ে নিতে চাই। করপোরেট, এসএমই ও খুচরা ঋণে মনোযোগ বাড়ানোর ইচ্ছা আছে। নতুন প্রজন্মের জন্য প্রযুক্তির মাধ্যমে বিভিন্ন সেবা চালু করতে হবে। তাহলেই ব্যাংকটি সবার কাছে আরও বেশি গ্রহণযোগ্যতা পাবে। অর্থনৈতিক অঞ্চলে শাখা চালু করে আরও বেশি মানুষের কাছে পৌঁছে যেতে চায় প্রাইম ব্যাংক।

বিজ্ঞাপন

এসব কার্যক্রমে পর্ষদের সমর্থন আছ কি না, এ নিয়ে হাসান ও. রশীদ বলেন, ‘আমার পরিকল্পনায় এসব আছে, পর্ষদও এতে সমর্থন দিয়েছে। আমি মনে করি, দেশের ভালো পরিচালনা পর্ষদের মধ্যে প্রাইম ব্যাংক একটি, যারা ব্যাংকটিকে আরও এগিয়ে নেওয়ার স্বপ্ন দেখে।’

প্রাইম ব্যাংকের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, হাসান ও. রশীদ আট বছর ইস্টার্ণ ব্যাংকে কর্মরত ছিলেন। শেষ পর্যন্ত তিনি অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। ইস্টার্ণ ব্যাংকের আর্থিক স্থিতিপত্রের প্রবৃদ্ধি অর্জন ও রূপান্তরে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন, এ জন্য ব্যাপকভাবে প্রশংসিতও হন।

স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক ব্যাংকের করপোরেট, ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা, এসএমই ও রিটেইল খাতে হাসান ও. রশীদের ২৭ বছরের বেশি সময়ের অভিজ্ঞতা আছ। এই সময়ে তিনি এইচএসবিসি ও স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের বিভিন্ন ঊর্ধ্বতন পদেও দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটাল ইউনিভার্সিটি থেকে ইকোনমিকস ও বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনে স্নাতক এবং যুক্তরাষ্ট্রের থান্ডার বার্ডের গার্ভিন স্কুল অব ম্যানেজমেন্ট থেকে ইন্টারন্যাশনাল ম্যানেজমেন্টে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।

এমডি পদে তিন বছর মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই গত ডিসেম্বরে প্রাইম ব্যাংক ছাড়তে হয় রাহেল আহমেদকে। এরপর গত মাসে রাহেল আহমেদ ডাক বিভাগের ডিজিটাল সেবা নগদে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে যোগ দেন।

বিজ্ঞাপন
ব্যাংক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন