বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আর করপোরেট গ্রাহকদের জন্য পরবর্তী সময়ে চালু করা হয় ‘প্লানেট প্লাস’। ফলে ব্যাংকটির সাধারণ গ্রাহকেরা নিজেরাই এখন ব্যাংকের নানা ধরনের ব্যাংকিং সেবা নিতে পারছেন। করপোরেট গ্রাহকেরাও বিভিন্ন সেবা নেওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন। এভাবে বর্তমানে ব্যাংকটির প্রায় ২৫ হাজার গ্রাহক সেবা নিচ্ছেন।

এনআরবিসি ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, তারা ২০১৯ সালের ২ জুলাই মোবাইল অ্যাপভিত্তিক সেবা ‘এনআরবিসি প্লানেট’ চালু করে। অ্যাপটি ব্যবহারের মাধ্যমে তাৎক্ষণিকভাবে অনলাইনে হিসাব খোলা থেকে শুরু করে ঋণের আবেদন, কিউআর কোডের মাধ্যমে টাকা তোলা, ব্যাংক হিসাব ও মোবাইল ব্যাংক হিসাবে টাকা পাঠানো, মুঠোফোন রিচার্জ, হিসাবের স্থিতি যাচাই করাসহ ব্যাংকটির সব ধরনের সেবাই পাওয়া যাচ্ছে। আবার চাইলে কেনাকাটা ও ই-কমার্সের বিল পরিশোধ, ক্রেডিট কার্ড ও সরকারি বিভিন্ন উপযোগ সেবার বিলও দেওয়া যাচ্ছে। পাশাপাশি এই অ্যাপের মাধ্যমে ব্যাংকের শাখা ও এটিএম বুথের অবস্থান, বিভিন্ন সেবা এবং প্রয়োজনীয় তথ্যের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা যাচ্ছে। সেবাটির মাধ্যমে এখন প্রতি মাসে গড়ে ৪০ থেকে ৪৫ কোটি টাকা লেনদেন হচ্ছে।

ব্যাংকটির কর্মকর্তারা জানান, গ্রাহক শাখায় এসে চেক ছাড়া এই অ্যাপের মাধ্যমে টাকা তুলতে পারেন। তবে এখনো গ্রাহকেরা এই সেবায় পুরোপুরি অভ্যস্ত হয়ে ওঠেননি।

বর্তমানে সারা দেশে এনআরবিসি ব্যাংকের ৮৩টি শাখা ও ৪৩০টি উপশাখা রয়েছে। পাশাপাশি ৫৮৮ এজেন্টের মাধ্যমে সেবা ছড়িয়ে দিচ্ছে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত এই ব্যাংক।

জানতে চাইলে এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গোলাম আউলিয়া প্রথম আলোকে বলেন, ‘ব্যাংকের সব ধরনের গ্রাহক প্লানেটের মাধ্যমে সেবা নিতে পারেন। দিন দিন এই সেবার ব্যবহারকারী বাড়ছে। গ্রাহকদের অনলাইনের মাধ্যমে সেবা নিতে আমরা নিয়মিত উদ্বুদ্ধ করছি।’

ব্যাংক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন