গতকাল রোববার বিশ্বব্যাংকের ঢাকা কার্যালয় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছে। এতে মার্টিন রাইজারের একটি বক্তব্য রয়েছে, যেখানে তিনি বলেন, বাংলাদেশ উন্নয়ন ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে অভূতপূর্ব সাফল্য দেখিয়েছে। গত ৫০ বছরের উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশের সঙ্গী হতে পেরে বিশ্বব্যাংক গর্বিত।

তিনি আরও বলেন, ‘দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর অর্থনীতি কোভিড থেকে শুরু করে জলবায়ু পরিবর্তন, মূল্যস্ফীতি বৃদ্ধিসহ নানা ধরনের আঘাতে জর্জরিত। কীভাবে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক সহনশীলতা তৈরি করেছে, সে সম্পর্কে জানতে চাই।’

জার্মানির নাগরিক মার্টিন রাইজার বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব লাভের আগে চীন, মঙ্গোলিয়া, কোরিয়া, তুরস্ক ও ব্রাজিলে সংস্থাটির কান্ট্রি ডিরেক্টর হিসেবে কাজ করেছেন।

বিশ্বব্যাংক এ পর্যন্ত বাংলাদেশকে প্রায় ৩ হাজার ৭০০ কোটি মার্কিন ডলার সহায়তা দিয়েছে। বাংলাদেশকে উন্নয়ন প্রকল্পে সহায়তা করার বাইরে বিশ্বব্যাংক বাজেট সহায়তাও দিয়ে থাকে।

বাংলাদেশ অর্থনৈতিক চাপ মোকাবিলায় ইতিমধ্যে বাজেট সহায়তা বাবদ বিশ্বব্যাংকের কাছে প্রায় ১০০ কোটি ডলার চেয়েছে। এ নিয়েও বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট আলোচনা করতে পারেন।

ব্যাংক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন