বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের এক গবেষণায় দেখা গেছে, তরুণ গ্রাহকেরা সহজ ঋণ-সুবিধামূলক ফিচারস, ডিজিটাল সেবা ও ডিজিটাল রিওয়ার্ডস পেতে পছন্দ করেন। আবার করোনা মহামারির ফলে গ্রাহকদের অর্থ ব্যয়ের অভ্যাসে লক্ষণীয় পরিবর্তন এসেছে। তাঁরা ব্যয়ের ক্ষেত্রে আগের তুলনায় বেশ সতর্ক হয়েছেন। এ জন্য গ্রাহকদের আধুনিক জীবনযাত্রা নিশ্চিতে স্মার্ট কার্ডটি সহজ ঋণসুবিধা, ডিজিটাল রিওয়ার্ডস, সেলফ-সার্ভিসসহ বিভিন্ন সুবিধা প্রদান করা হচ্ছে। এর মধ্যে ক্যাশ-ব্যাক, সেভিংস ও মূল্যছাড় ইত্যাদি সুবিধা উল্লেখযোগ্য। এটি কার্বন-নিউট্রাল পদ্ধতিতে তৈরি ‘দেশের প্রথম’ ক্রেডিট কার্ড।

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) নাসের এজাজ বিজয় বলেন, ‘মিলেনিয়্যালস দ্বারা গড়া ও আধুনিক চিন্তাধারার মানুষের জন্যই মূলত এই স্মার্ট কার্ড। ডিজিটাল লাইফস্টাইল, সামাজিক দায়িত্ববোধ ও দূরদর্শী মানসিকতায় বিশ্বাসীরা এই কার্ড ব্যবহারে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করবেন।’

নাসের এজাজ বিজয় আরও বলেন, সামাজিক উন্নয়নে অবদান রাখার ক্ষেত্রেও স্মার্ট কার্ডটি বিশেষভাবে উপযোগী, যেটির মাধ্যমে সুবিধাবঞ্চিত তরুণদের, বিশেষত মেয়েদের ও দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের পাশে দাঁড়ানো যাবে। ভবিষ্যতে গ্রাহকদের মতামতের ওপর ভিত্তি করে কার্ডে প্রয়োজনীয় পরিবর্তন আনা হবে।

এসসিবির ভোক্তা, বেসরকারি ও ব্যবসায়িক ব্যাংকিংয়ের প্রধান সাব্বির আহমেদ বলেন, কার্ডটির মাধ্যমে ভোক্তারা দৈনন্দিন ব্যয়ের মধ্য দিয়েও বিভিন্নভাবে উপার্জন এবং সঞ্চয় করতে পারবেন। এ ছাড়া এই স্মার্ট কার্ডধারী গ্রাহকেরা প্রয়োজনে সুদমুক্ত কিস্তি সুবিধাও পাবেন।

করপোরেট সংবাদ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন