default-image

আমাদের প্রিয় বাংলাদেশ দিনকে দিন বিকশিত হচ্ছে। এই মেগা উন্নয়নের পেছনে প্রত্যেকের যার যার নিজস্ব অবস্থান থেকে অবদান রয়েছে। বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনকারী হিসেবে, মার্চেন্ট মেরিন অফিসাররা হলেন উন্নয়নের শীর্ষস্থানীয় অবদানকারীদের মধ্যে অন্যতম। তাঁদের পেশার সবাইকে নিয়ে একসঙ্গে থাকতে পারার মতো কোনো আবাসন প্রকল্প বাংলাদেশে ছিল না, যেখানে তাঁরা একসঙ্গে থাকতে পারেন এবং তাঁদের সুখ–দুঃখ ভাগ করে নিতে পারেন। সুতরাং সেই প্রচেষ্টা নিয়ে সব মেরিনারকে একত্র করার দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে শুরু আমাদের আনন্দের পথচলা ‘পূর্বাচল মেরিন সিটি’, যা প্রথম দিকে মেরিনার্সদের একই আবাসন প্রকল্পের ছায়াতলে আনার প্রচেষ্টা দিয়ে যাত্রা শুরু করেছিল।

‘পূর্বাচল মেরিন সিটি’ ধীরে ধীরে মেরিনার্সদের নিজেদের আবাসনের চাহিদা পূরণের সঙ্গে সঙ্গে অন্য সব পেশার মানুষের দ্রুত বর্ধমান আবাসন চাহিদা পূরণের চ্যালেঞ্জ গ্রহণের মাধ্যমে একটি সম্পূর্ণ নতুন অধ্যায়ের সূচনা করে। যা বর্তমানে একটি সফল আবাসন প্রকল্প হিসেবে রূপ নেয়। প্রকল্পটি নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জের দাউদপুর ইউনিয়নে রাজউকের পূর্বাচল মেগা টাউন–সংলগ্ন।

পূর্বাচল মেরিন সিটির বৈশিষ্ট্যগুলো হলো—
রেডি প্লট: প্রতিটি প্লট পানি, বিদ্যুৎ সুবিধাসহ এখনই বাড়ি তৈরির উপযোগী করে বানানো হয়েছে।

রাজউক পূর্বাচল মেগা টাউন–সংলগ্ন: পূর্বাচল মেরিন সিটি রাজউক–সংলগ্ন পূর্বাচল মেগা টাউনের ২১, ২২ ও ৩০ নম্বর সেক্টরের মাঝামাঝি অবস্থিত।
লাল ও শক্ত মাটি: প্রকল্পটি লাল ও শক্ত মাটি দ্বারা আচ্ছাদিত। তাই পাইলিংয়ের কোনো দরকার নেই।

বিজ্ঞাপন

জিন্দা ইকোপার্ক–সংলগ্ন: প্রকল্পটির পাশেই রয়েছে নয়নাভিরাম জিন্দা ইকোপার্ক।

মসজিদ ও কবরস্থান: প্রকল্পজুড়ে থাকবে পর্যাপ্ত মসজিদ ও কবরস্থানের জন্য চিহ্নিত স্থান।

রাস্তা: এখানে থাকছে ২৫৴, ৩০৴, ৪০৴, ৬০৴ ও ১০০৴ প্রশস্ত সড়কের সুবিধা।
স্কুল, কলেজ ও খেলার মাঠ: সেখানে থাকবে প্রাথমিক বিদ্যালয়, মাধ্যমিক বিদ্যালয়, বিশ্ববিদ্যালয় মানসম্মত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং খেলার মাঠ।

স্বাস্থ্য ক্লিনিক ও মেডিকেল: বিশ্বব্যাপী নামকরা হাসপাতাল, ক্লিনিক এবং প্রস্তাবিত মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল থাকবে।

শপিং মল ও মার্কেট: লিফট, এসকেলেটর, ফায়ার ফাইটিং সিস্টেম, প্রতিটি ব্লকের জন্য পৃথক গাড়ি পার্কিংসহ থাকবে অত্যাধুনিক সুবিধাসংবলিত মাল্টিস্টোরেজ শপিং মল।

লেক অ্যান্ড চিলড্রেনস পার্ক: আরও থাকবে লেক, আধুনিক বৈশিষ্ট্যযুক্ত চিলড্রেনস পার্ক।

সুরক্ষা এবং রোড নেটওয়ার্ক: সিসিটিভি, প্রকল্পের সব মূল পয়েন্টসহ আউটস্ট্যান্ডিং রোড নেটওয়ার্কের সাহায্যে রাউন্ড দ্য ক্লক ফুল প্রুফ সুরক্ষাব্যবস্থা বিদ্যমান থাকবে।

বিনোদন: স্বাস্থ্য, বিনোদনসহ থাকবে আধুনিক কমিউনিটি সেন্টার। আরও থাকবে লেডিস ক্লাব, পুরুষ ও নারীদের জন্য পৃথক স্বাস্থ্য ক্লাব, জিম, থিয়েটার হল, বিনোদনমূলক উদ্যান ও সুইমিং পুল।

অবকাঠামোগত সুবিধাদি: প্রতিটি প্লটে থাকবে স্বতন্ত্র গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানি ও নিষ্কাশনকারী সুবিধা।
পূর্বাচল মেরিন সিটি যাত্রাটিকে সেই মুহূর্তের মতো আনন্দময় করতে চায়, যখন একটি মানুষ তার কষ্টার্জিত অর্থ ব্যয় করে স্বপ্নের একটি আবাসন খুঁজে পায়।

করপোরেট সংবাদ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন