বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
আন্তর্জাতিক বাজারে দর কমায় দেশের বাজারে সোনার দাম ভরিতে ১ হাজার ৫১৬ টাকা কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি।

বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টায় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সোনার দাম কমানোর সিদ্ধান্ত জানায়। সমিতির সভাপতি এনামুল হক খান ও সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগরওয়ালা স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আন্তর্জাতিক বাজারে সোনার দাম কিছুটা নিম্নমুখী। তাই জুয়েলারি বাজারের অচলাবস্থা কাটাতে ও ভোক্তা সাধারণের কথা চিন্তা করে দেশের বাজারে সোনার দাম কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার থেকে নতুন দর কার্যকর হওয়ায় ২২ ক্যারেটের ১ ভরি সোনার অলংকার কিনতে ব্যয় হবে ৭১ হাজার ৯৬৭ টাকা। এ ছাড়া ২১ ক্যারেট ৬৮ হাজার ৮১৮ টাকা, ১৮ ক্যারেট ৬০ হাজার ৭০ টাকা ও সনাতন পদ্ধতির সোনার অলংকারের ভরি বিক্রি হবে ৪৯ হাজার ৭৪৭ টাকায়। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ২২ ক্যারেটের এক ভরি সোনা ৭৩ হাজার ৪৮৩ টাকা, ২১ ক্যারেট ৭০ হাজার ৩৩৪ টাকা, ১৮ ক্যারেটের ৬১ হাজার ৫৮৬ টাকা ও সনাতন পদ্ধতির সোনার অলংকারের ভরি বিক্রি হয়েছে ৫১ হাজার ২৬৩ টাকায়।

করোনার কারণে দেড় বছর ধরে দেশ ও বিদেশের সোনার বাজারে অস্থিরতা চলছে। গত বছর ৬ আগস্ট দেশে সোনার দাম ৭৭ হাজার ২১৬ টাকা ভরি হয়েছিল। সেটিই ছিল দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ দাম। ওই সময় সোনার অলংকার বিক্রির প্রবণতাও বেড়েছিল।

আন্তর্জাতিক বাজারে সোনার দাম কমলেও গত ২২ আগস্ট দেশের বাজারে ভরিতে ১ হাজার ৫১৬ টাকা বৃদ্ধি করছিল জুয়েলার্স সমিতি। তখন দাম বাড়ানোর পক্ষে সমিতির নেতারা যুক্তি দেখান, করোনার কারণে সৃষ্ট অর্থনৈতিক সংকট ও নানা জটিল সমীকরণের কারণে বিশ্ব বাজারে সোনার মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। একই সঙ্গে আন্তর্জাতিক গন্তব্যে বিমান চলাচল বন্ধ থাকার পাশাপাশি আমদানি পর্যায়ে শুল্ক জটিলতা ও নানা ধরনের দাপ্তরিক জটিলতায় ডিলার লাইসেন্স পাওয়া প্রতিষ্ঠানগুলো সোনার বার আমদানি করতে পারছে না। এ ছাড়া চাহিদার বিপরীতে জোগান কম থাকায় দেশীয় বুলিয়ন মার্কেটে সোনার মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে।

অর্থনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন