default-image

মৌলভীবাজার সদর উপজেলার শেরপুরের শ্রীহট্ট অর্থনৈতিক অঞ্চলে গতকাল বৃহস্পতিবার চারটি শিল্পপ্রতিষ্ঠানের উন্নয়নকাজের উদ্বোধন করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে—পলমল গ্রুপের আয়েশা ক্লথিং লিমিটেড ও আসোয়াদ কম্পোজিট লিমিটেড, ডাবল গ্লেজিং লিমিটেড এবং গ্রেট ওয়াল সিরামিকস লিমিটেড।

বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী প্রতিষ্ঠানগুলোর উন্নয়নকাজের উদ্বোধন করেন। করোনা মহামারির কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে বক্তব্য দেন মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান, পলমল গ্রুপের পরিচালক কে এম মাহতাব উদ্দিন, গ্রেট ওয়াল সিরামিকসের নির্বাহী পরিচালক মো. খালেদুজ্জামান, ডাবল গ্লেজিংয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মইনুল ইসলাম ও পরিচালক (পরিচালন) মনোজাহা পলি। আরও উপস্থিত ছিলেন পলমল গ্রুপের পরিচালক আদনান ইমতিয়াজ।

বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী বলেন, এটি সিলেটের প্রথম অর্থনৈতিক অঞ্চল। সেই হিসেবে অঞ্চলটি সিলেটের অর্থনৈতিক গতিধারার পুরোধা হয়ে উঠবে। এভাবে অর্থনৈতিক অঞ্চলের হাত ধরে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত আপন মহিমায় অর্থনীতির সঙ্গে যুক্ত হবে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ গড়ে তুলতে সমর্থ হয়েছে এবং বিশ্বের সামনে উন্নয়নের একটি রোল মডেল স্থাপন করেছে। এর ফলে এ দেশে শিল্পায়নে অভূতপূর্ব বিপ্লব সাধিত হবে। জনগণের জীবনযাত্রার মান বৃদ্ধির পাশাপাশি টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যও পূরণ হবে।

বিজ্ঞাপন

পলমল গ্রুপের পরিচালক কে এম মাহতাব উদ্দিন জানান, শ্রীহট্ট অর্থনৈতিক অঞ্চলে সবার আগে শিল্প স্থাপনের কাজ শুরু করতে পেরে তাঁরা আনন্দিত। আগামী বছরের মাঝামাঝি সময়ে কারখানা নির্মাণ শেষ হবে বলে আশা করছেন তাঁরা।

গ্রেট ওয়াল সিরামিকসের নির্বাহী পরিচালক মো. খালেদুজ্জামান জানান, তাঁর প্রতিষ্ঠান এই অর্থনৈতিক অঞ্চলে প্রায় ৮০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে। এতে দুই হাজারের বেশি লোকের কর্মসংস্থান সৃষ্টির পরিকল্পনা রয়েছে তাঁদের।

ডাবল গ্লেজিংয়ের এমডি মইনুল ইসলামের দাবি, তাঁদের শিল্পপ্রতিষ্ঠানটি পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান বলেন, অর্থনৈতিক অঞ্চলসমূহে দক্ষ ও চাহিদাভিত্তিক জনবল তৈরির জন্য ইতিমধ্যে নানা পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

বেজা সূত্র জানা গেছে, ৩৫২ একর জমি নিয়ে গড়ে তোলা হয়েছে শ্রীহট্ট অর্থনৈতিক অঞ্চল। এখানে প্রায় ৪৪ হাজার লোকের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ কর্মসংস্থান হবে। অর্থনৈতিক অঞ্চলটিতে ইতিমধ্যে ছয়টি শিল্পপ্রতিষ্ঠানকে জমি বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

অর্থনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন