বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

যমুনা গ্রুপের কথা উল্লেখ করে মোহাম্মদ আলমগীর আলম বলেন, এ গ্রুপ ব্যবসা পরিচালনায় উৎপাদনমুখী ও গঠনমূলক ব্যবসায়িক নীতিকেই গুরুত্ব দেয়, যা দেশের শিল্প অবকাঠামোগত ব্যাপকভিত্তিক উন্নয়নের পাশাপাশি দীর্ঘ মেয়াদে লাখ লাখ মানুষের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে ও জীবন-জীবিকার সংস্থানে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখে আসছে।

গণবিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, অন্য কোনো কোম্পানিতে যমুনা গ্রুপের অর্থ বিনিয়োগ করার সিদ্ধান্ত, এখতিয়ার ও অধিকার শুধু যমুনা গ্রুপের একান্ত বিষয়। এটি কারও অনুরোধে ঢেঁকি গেলার বিষয় নয়। অন্য কোনো কোম্পানির অভ্যন্তরীণ বিষয়ে যমুনা গ্রুপ কোনো দায় অতীতে নেয়নি, ভবিষ্যতেও নেবে না।

এর আগে গত ২৭ আগস্ট আলমগীর আলম ফেসবুক পোস্টেই জানিয়েছিলেন, যমুনা গ্রুপের উদ্যোগে ই–ভ্যালির নিরীক্ষা চলছে। ই–ভ্যালির গ্রাহক ও ই–ভ্যালিতে পণ্য সরবরাহকারীদের পাওনা-দেনা নির্ধারিত হবে এই নিরীক্ষার মাধ্যমে। এরপর যমুনা গ্রুপ ই–ভ্যালিতে বিনিয়োগের বিষয়ে আনুষ্ঠানিক কথা বলবে।

আলমগীর আলম ওই ফেসবুক পোস্টে আরও বলেছিলেন, যেহেতু এখনো নিরীক্ষা কার্যক্রম শেষ হয়নি এবং এর চূড়ান্ত প্রতিবেদন এখনো যমুনা গ্রুপের হাতে আসেনি, তাই ই–ভ্যালিতে বিনিয়োগের বিষয়ে যমুনা গ্রুপ আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দিতে প্রস্তুত নয়।

অর্থনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন