বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এর আগে ৯ অক্টোবর বাংলাদেশ পোলট্রি শিল্প ফোরাম সয়ামিল রপ্তানি বন্ধের দাবি জানিয়ে ঢাকায় এক সমাবেশ করে। সেখানে বক্তারা বলেন, দেশে মাংসের সিংহভাগ চাহিদা পূরণ করছে স্থানীয় পোলট্রিশিল্প, যেখানে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সোয়া কোটি মানুষ সম্পৃক্ত। কিন্তু এই শিল্পের অন্যতম কাঁচামাল সয়ামিলের দাম সিন্ডিকেটের মাধ্যমে অস্বাভাবিকভাবে বাড়ানো হয়েছে। একই সঙ্গে বাচ্চার দামও বেড়েছে কয়েক গুণ। কিন্তু ডিম ও মাংসের দাম খামারি পর্যায়ে সেভাবে বাড়েনি। এ কারণে দেশের লাখ লাখ প্রান্তিক খামারি কোটি কোটি টাকার লোকসানে পড়েছেন।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় বলেছে, সয়ামিল রপ্তানি অব্যাহত থাকলে এর প্রভাবে ডেইরি ও পোলট্রি খাদ্য উৎপাদন মারাত্মকভাবে বাধাগ্রস্ত হতে পারে। এর ফলে ডেইরি ও পোলট্রি খাদ্যের দাম বাড়বে।

অর্থনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন