বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর বলেছেন, বাংলাদেশের সঙ্গে এডিবির দৃঢ় সম্পর্ক আছে। গ্রামীণ ও নগর উন্নয়নে সহায়তা অব্যাহত রাখা এবং জলবায়ু সহনশীল উন্নয়ন বিনিয়োগে উৎসাহিত করবে এডিবি। কোভিড-১৯ মহামারির ক্রান্তিকালে বাংলাদেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বের প্রশংসা করেন এডিমন গিন্টিং।

২৬ থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠেয় এডিবির ৫৫তম বার্ষিক সভায় অংশগ্রহণ করবেন জেনে অর্থমন্ত্রীকে অগ্রিম ধন্যবাদ জানান এডিমন গিন্টিং। ২০২৩ সালে বাংলাদেশ ও এডিবির ৫০ বছর পূর্তি উদ্‌যাপনের বিষয়েও তিনি আলোচনা করেন।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ সরকারকে এ পর্যন্ত ২ হাজার ৭৫৫ কোটি ৫০ লাখ ডলার ঋণ দিয়েছে এডিবি। বাংলাদেশে উন্নয়ন সহায়তার ক্ষেত্রে এডিবি বিদ্যুৎ, শিক্ষা, পরিবহন, জ্বালানি, পানিসম্পদ, কৃষি, স্থানীয় সরকার, সুশাসন, আর্থিক ও বেসরকারি খাতকে প্রাধান্য দেয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে, বিশেষ করে কোভিড-১৯-এর ক্ষতিকর প্রভাব উত্তরণে দ্রুততার সঙ্গে বাংলাদেশকে সহায়তার জন্য এডিবির প্রশংসা করেন অর্থমন্ত্রী। স্বল্পোন্নত দেশ (এডিসি) থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ-পরবর্তী চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় এডিবিকে আরও উন্নয়ন সহযোগিতা দেওয়ার অনুরোধ করেন তিনি।

অর্থনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন