অর্থমন্ত্রীর আ হ ম মুস্তফা কামালের কাছে প্রশ্ন ছিল, গত সপ্তাহে তিনি বলেছিলেন বিদেশি ঋণের প্রয়োজন নেই, অথচ গণমাধ্যমে এসেছে আইএমএফ থেকে ঋণ চেয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আইএমএফের একটি দল এসেছিল, প্রতিবছরই আসে। দলটি ছিল তখনো। সে সময় যদি বলি, আমাদের অর্থের দরকার, তখন তারা অর্থ দিলেও সুদহার বাড়িয়ে দিতে পারে। গ্রাহক (বায়ার) হিসেবে আমরা খুব ভেবেচিন্তে সিদ্ধান্ত নেওয়ার চেষ্টা করি। আমরা ভাব দেখাই আমাদের অর্থের দরকার নেই। এটাই হলো মূল কথা।’

আইএমএফকে দেওয়া চিঠিতে ঋণের পরিমাণ ৪৫০ কোটি ডলার উল্লেখ করা হয়েছে কি না, জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা পরিমাণ উল্লেখ করিনি। এটা মনে হয় ভুল–বোঝাবুঝি। ঋণ নিলে আমার দায়িত্ব হচ্ছে আপনাদের ব্যাখ্যা দেওয়া। আমি সব সময় ব্যাখ্যা দিতে রাজি।’ অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আইএমএফ কী শর্তে ঋণ দিতে চাচ্ছে, দেখতে হবে। তাদের ইতিবাচক দেখা গেলে বিবেচনা করতে পারি।’

অর্থমন্ত্রী মুস্তফা কামাল বলেন, ‘বিভিন্ন পরিপ্রেক্ষিত দেখে আমরা অর্থনীতি ব্যবস্থাপনা করি। আমাদের ঋণ দরকার। বলেছিলাম ঋণ আমরা দেব। আবারও বলি, ভবিষ্যতে ঋণ দিতে পারব।’

অর্থনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন