সে হিসাবে এখন থেকে কেউ চাইলে প্রতিবছর নবায়ন করার পরিবর্তে একবারে পাঁচ বছরের জন্যও আইআরসি ও ইআরসি নিতে পারবেন। এ সনদ নিতে হয় প্রধান আমদানি রপ্তানি নিয়ন্ত্রকের কার্যালয় (সিসিআইঅ্যান্ডই) থেকে।

পরিপত্রে বলা হয়েছে, যেদিন সনদ দেওয়া হবে বা নবায়ন করা হবে, সেদিন থেকেই মেয়াদ গণনা করা হবে। তবে মেয়াদ অনুযায়ী সনদের জন্য তাঁদের ফি (মাশুল) দিতে হবে। মেয়াদ অনুযায়ী মাশুলের হার কত, তা আর উল্লেখ করেনি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

সিসিআইঅ্যান্ডই গত আগস্টে আইআরসি ও ইআরসি সনদের মাশুলের পরিমাণ বাড়িয়েছে। ৫০ লাখ টাকার পণ্য আমদানির ক্ষেত্রে নিবন্ধন মাশুল ১৮ হাজার থেকে বাড়িয়ে ২৪ হাজার টাকা, ১ কোটি টাকা পর্যন্ত আমদানি সীমার ক্ষেত্রে ৩০ হাজার থেকে বাড়িয়ে ৪০ হাজার টাকা ও ৫ কোটি টাকার পণ্য আমদানি সীমার ক্ষেত্রে নিবন্ধন মাশুল ৪৫ হাজার থেকে বাড়িয়ে ৫০ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

একইভাবে ২০ কোটি টাকা পর্যন্ত আমদানি সীমার প্রতিষ্ঠানের মাশুল ৪৫ হাজার থেকে বাড়িয়ে ৬০ হাজার, ৫০ কোটি টাকা পর্যন্ত সীমা প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে ৪৫ হাজার থেকে বাড়িয়ে ৭০ হাজার টাকা ও ১০০ কোটি বা তার বেশি প্রতিষ্ঠানের আইআরসি নিবন্ধন মাশুল ৪৫ হাজার থেকে বাড়িয়ে ৮০ হাজার টাকা পর্যন্ত করা হয়েছে।

এ ছাড়া রপ্তানির ক্ষেত্রে নিবন্ধন মাশুল ৭ হাজার থেকে বাড়িয়ে ১০ হাজার টাকা, ইন্ডেটিং সেবার ক্ষেত্রে ৪০ হাজার থেকে বাড়িয়ে ৫০ হাজার টাকা ও বহুজাতিক কোম্পানির ইআরসির ক্ষেত্রে ৭ হাজার থেকে বাড়িয়ে ১০ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।