ঢাকার শেয়ারবাজারে গতকাল দিন শেষে লেনদেনের পরিমাণ ছিল ৯৩২ কোটি টাকা, প্রায় এক মাসের ব্যবধানে এটিই ডিএসইতে সর্বোচ্চ লেনদেন। এর আগে সর্বশেষ গত ৩১ মার্চ ডিএসইতে সর্বোচ্চ ১ হাজার ১১৭ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছিল। বাজার–সংশ্লিষ্টরা বলছেন, গতকাল বাজারে লেনদেন বৃদ্ধির পেছনে বড় কারণ ছিল ব্লকের লেনদেন।

সাধারণত ব্লক মার্কেটে লেনদেনের ক্ষেত্রে ক্রেতা–বিক্রেতা আগে থেকেই ঠিক থাকে। এমনকি শেয়ারের দামও আগে থেকে ঠিক করে রাখা হয়। শুধু ব্রোকারেজ হাউসের মাধ্যমে শেয়ারের হাতবদল করে এক বিও (বেনিফিশারি ওনার্স) থেকে অন্য বিওতে স্থানান্তর করা হয়। ব্লক মার্কেটে লেনদেনের সুবিধা হলো এ বাজারে নির্ধারিত দামে বড় অঙ্কের শেয়ারের হাতবদল করা যায় সহজে। কিন্তু সাধারণ বাজারে বড় অঙ্কের শেয়ার বিক্রি করতে গেলে তাতে দামের ওপর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। এমনকি অনেক ক্ষেত্রে ক্রেতাশূন্য হয়ে যায় ওই শেয়ার। এ কারণে প্রাতিষ্ঠানিক ও ব্যক্তিশ্রেণির বড় বিনিয়োগকারীরা বড় অঙ্কের শেয়ার লেনদেনে ব্লক মার্কেটকে বেছে নেন।

ডিএসইতে গতকাল ব্লকের ১৪০ কোটি টাকার লেনদেনের মধ্যে চার কোম্পানিরই লেনদেন ছিল ১১৯ কোটি টাকার। এর মধ্যে সর্বোচ্চ ৫২ কোটি টাকায় হাতবদল হয়েছে জিপিএইচ ইস্পাতের প্রায় ৯৭ লাখ শেয়ার।

ডিএসইতে গতকাল ব্লকের ১৪০ কোটি টাকার লেনদেনের মধ্যে চার কোম্পানিরই লেনদেন ছিল ১১৯ কোটি টাকার। এর মধ্যে সর্বোচ্চ ৫২ কোটি টাকায় হাতবদল হয়েছে জিপিএইচ ইস্পাতের প্রায় ৯৭ লাখ শেয়ার। এরপরই দ্বিতীয় সর্বোচ্চ লেনদেন হয়েছে সোনালী পেপারের। কোম্পানিটির ২৮ কোটি ৪৮ লাখ টাকায় প্রায় ৩ লাখ শেয়ারের হাতবদল হয়। ব্লকে তৃতীয় সর্বোচ্চ লেনদেন ছিল ইসলামী ব্যাংকের। এদিন ব্লকে ২৭ কোটি টাকায় কোম্পানিটির প্রায় ৯৩ লাখ ২৪ হাজার শেয়ারের হাতবদল হয়। আর ১২ কোটি টাকার আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইপিডিসির ২১ লাখের বেশি শেয়ারের হাতবদল হয়েছে।

জিপিএইচ ইস্পাত ও সোনালী পেপারের শেয়ার বাজারমূল্যের চেয়ে বেশি দামে হাতবদল হয় ব্লকে। আর ইসলামী ব্যাংকের শেয়ারের হাতবদল হয়েছে বাজারমূল্যের চেয়ে ৩ টাকা কম দামে।

এ চার কোম্পানির মধ্যে জিপিএইচ ইস্পাত ও সোনালী পেপারের শেয়ার বাজারমূল্যের চেয়ে বেশি দামে হাতবদল হয় ব্লকে। আর ইসলামী ব্যাংকের শেয়ারের হাতবদল হয়েছে বাজারমূল্যের চেয়ে ৩ টাকা কম দামে। আর আইপিডিসির শেয়ারের হাতবদল হয়েছে বাজারমূল্যে। সব মিলিয়ে ব্লকে গতকাল ৪০টি কোম্পানির প্রায় আড়াই কোটি শেয়ারের হাতবদল হয়েছে।

অনেক সময় বড় বিনিয়োগকারীরা বাজারে লেনদেন বাড়াতে নিজেদের মধ্যেই শেয়ারের হাতবদল করে। এক বিও থেকে অন্য বিওতে শেয়ার স্থানান্তর করে।

বাজারসংশ্লিষ্টরা বলছেন, অনেক সময় বড় বিনিয়োগকারীরা বাজারে লেনদেন বাড়াতে নিজেদের মধ্যেই শেয়ারের হাতবদল করে। এক বিও থেকে অন্য বিওতে শেয়ার স্থানান্তর করে। আবার অনেক সময় কোম্পানির উদ্যোক্তারাও নিজেদের মধ্যে বড় অঙ্কের শেয়ারের হাতবদল করতে ব্লক মার্কেটকে বেছে নেন।

শেয়ারবাজার থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন