চলতি বছরের মধ্যে শেয়ারবাজারে নতুন বিনিয়োগ পণ্য আনছে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। সংস্থাটি এক্সচেঞ্জ ট্রেডেড ফান্ড বা ইটিএফ নামে নতুন এ পণ্য আগামী সেপ্টেম্বর-অক্টোবর মাসের মধ্যে বাজারে আনবে বলে জানিয়েছে। শুরুতে যে ইটিএফ বাজারে আসবে, সেটি শুধু ডিএস-৩০ সূচকে অন্তর্ভুক্ত ৩০ কোম্পানিতে বিনিয়োগ করবে। নতুন এ ফান্ড বা বিনিয়োগ পণ্য বাজারে এলে তা বাজারের স্থিতিশীলতা তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছে ডিএসই।

ইটিএফ ও বিকল্প লেনদেনের বোর্ড (এটিবি) চালুর বিষয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এমন দাবি করেছে ডিএসই কর্তৃপক্ষ। রাজধানীর নিকুঞ্জে ডিএসই টাওয়ারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন সংস্থাটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক তারিক আমিন ভূঁইয়া। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন সংস্থাটির প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা এম সাইফুর রহমান, প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা মো. জিয়াউল করিমসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এটিবি চালু হলে কোনো কোম্পানি প্রাইভেট প্লেসমেন্টে শেয়ার বিক্রি করতে চাইলে এ প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে করতে পারবে। তবে এটিবি চালুর আগে ইটিএফ চালুর কাজ করছে ডিএসই।

ইটিএফ হচ্ছে বিশেষ উদ্দেশ্যে গঠিত একধরনের তহবিল। এ ধরনের তহবিল থেকে নির্দিষ্ট কিছু শেয়ার বা নির্দিষ্ট সূচক অন্তর্ভুক্ত কোম্পানিতে বিনিয়োগ করা হয়। মিউচুয়াল ফান্ডের মতো এ তহবিল ব্যবস্থাপনারও দায়িত্বে থাকে সম্পদ ব্যবস্থাপক প্রতিষ্ঠান। ওই সম্পদ ব্যবস্থাপক প্রতিষ্ঠান তহবিলের অর্থ আইন অনুযায়ী, নির্ধারিত শেয়ারে বিনিয়োগ করে। আর ইটিএফ শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হবে। সাধারণ বিনিয়োগকারীরা স্টক এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে তহবিলটির ইউনিট কেনাবেচার সুযোগ পাবেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, শুরুতে যে ইটিএফ চালুর উদ্যোগ নিয়েছে ডিএসই, সেটি ডিএস-৩০ সূচকনির্ভর। অর্থাৎ সবচেয়ে ভালো মৌল ভিত্তির ৩০ কোম্পানির শেয়ারের বিনিয়োগের জন্য এ তহবিল গঠন করা হবে।

জানা গেছে, লংকাবাংলা গ্রুপ, শান্তা অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট ও গ্রিনডেল্টা অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট প্রথম ইটিএফ চালুর বিষয়ে তাদের আগ্রহ জানিয়েছে ডিএসইতে আবেদন করেছে। এর বাইরে আরও কয়েকটি প্রতিষ্ঠান এ ধরনের তহবিল গঠনের পরিকল্পনা করছে বলে জানা গেছে।

সংবাদ সম্মেলনে ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ইটিএফ খুবই জনপ্রিয় একটি বিনিয়োগ পণ্য। মিউচুয়াল ফান্ডের চেয়ে ইটিএফে বিনিয়োগ তুলনামূলক কম ঝুঁকিপূর্ণ। মিউচুয়াল ফান্ডের মতোই ইটিএফও নিয়মিত প্রকৃত সম্পদমূল্য বা এনএভি প্রকাশ করবে। এনএভির কাছাকাছি ইটিএফের ইউনিট কেনাবেচা হয়, তা নিশ্চিত করবে তহবিলের ব্যবস্থাপক।