default-image

১২ বছর পর দেশের শেয়ারবাজারে যুক্ত হচ্ছে আরও একটি ব্যাংক। শেয়ারবাজারে যুক্ত হচ্ছে চতুর্থ প্রজন্মের এনআরবি কমার্শিয়াল (এনআরবিসি) ব্যাংক। চতুর্থ প্রজন্মের ব্যাংকের মধ্যে এটিই প্রথম শেয়ারবাজারে যুক্ত হচ্ছে। দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জে একযোগে কোম্পানিটির লেনদেন শুরু হবে আজ সোমবার।

এর আগে দুই স্টক এক্সচেঞ্জের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক তালিকাভুক্ত হবে ব্যাংকটি। প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ওয়েবসাইটে এনআরবিসি ব্যাংকের তালিকাভুক্তির বিষয়ে তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। এনআরবিসি ব্যাংক প্রাথমিক গণপ্রস্তাব বা আইপিওতে ১২ কোটি শেয়ার ছেড়ে ১২০ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে। আইপিওতে প্রতিটি শেয়ার বিনিয়োগকারীদের মধ্যে ১০ টাকা অভিহিত মূল্য বা ফেসভ্যালুতে বিক্রি করা হয়। ব্যাংকটি জানিয়েছে, আইপিওর মাধ্যমে সংগৃহীত অর্থের মধ্যে ১১০ কোটি টাকা সরকারি বিভিন্ন সিকিউরিটিজে বিনিয়োগ করা হবে। ৬ কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হবে শেয়ারবাজারে।

বিজ্ঞাপন

এর আগে শেয়ারবাজারে সর্বশেষ তালিকাভুক্ত ব্যাংক ছিল ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক। ২০০৮ সালে ব্যাংকটি শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হয়েছিল। তার ১২ বছর পর শেয়ারবাজারে যুক্ত হচ্ছে এনআরবিসি ব্যাংক। ব্যাংকটি যুক্ত হওয়ার পর শেয়ারবাজারে ব্যাংকের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াবে ৩১। এর মধ্যে একমাত্র রূপালী ব্যাংক ছাড়া বাকি ৩০টিই দেশীয় মালিকানাধীন বেসরকারি ব্যাংক। বর্তমানে দেশীয় মালিকানাধীন বেসরকারি ব্যাংকের সংখ্যা ৪২।

এদিকে তালিকাভুক্তির আগে গতকাল ডিএসইতে অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে এনআরবিসি ব্যাংক। আর্থিক প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, গত জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর—এ তিন মাসে ব্যাংকটি কর-পরবর্তী ১০৪ কোটি টাকার বেশি মুনাফা করেছে। তাতে ব্যাংকটির শেয়ারপ্রতি আয় বা ইপিএস দাঁড়িয়েছে ১ টাকা ৭৯ পয়সা। তবে আইপিওর ১২ কোটি শেয়ারকে বিবেচনায় নেওয়ার পর শেয়ারপ্রতি আয় দাঁড়ায় প্রায় ১ টাকা ৪৯ পয়সায়।

নতুন তালিকাভুক্ত কোম্পানি হিসেবে এনআরবিসি ব্যাংক ‘এ’ শ্রেণিভুক্ত হবে। নিয়ম অনুযায়ী, প্রথম ৩০ কার্যদিবস লেনদেনে এ ব্যাংকের শেয়ার কেনায় ঋণসুবিধা মিলবে না।

শেয়ারবাজার থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন