এদিকে মাস্কের হাতে টুইটারের মালিকানা যাওয়ার কারণে যারপরনাই খুশি সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তাঁর টুইট, ‘টু্ইটার এবার প্রকৃতিস্থ মানুষের হাতে এসেছে।’ এ নিয়ে রাজনীতিকদের মধ্যেও শোরগোল শুরু হয়ে গেছে। তাঁদের আশঙ্কা, টুইটার এখন ভুয়া তথ্য ও ঘৃণা ভাষণ ছড়ানোর মাধ্যমে পরিণত হবে।

এদিকে মাস্কও নিজের স্টাইলে শুরু করেছেন। তিনি বলেন, বানের জলের মতো সবকিছুকে স্বাগত জানাতে তিনি রাজি নন। টুইটারের নতুন মালিক হওয়ার পর এই বার্তা দিয়েছেন ধনকুবের ইলন মাস্ক। ‘মাইক্রোব্লগিং সাইট’ অধিগ্রহণ করে বৃহস্পতিবারের সেই বিবৃতির পর শুক্রবার টেসলা–কর্তার টুইটে ‘স্বাধীনতা’র বার্তা পাওয়া গেল। মাস্ক লেখেন, ‘পাখি এখন মুক্ত’। প্রসঙ্গত, টুইটারের লোগোতে নীল রঙের একটি পাখির ছবি রয়েছে।

বৃহস্পতিবার হাতে সিঙ্ক নিয়ে টুইটার কার্যালয়ে প্রবেশ করেছেন মাস্ক। চওড়া হাসি আর হাতে সিঙ্ক নিয়ে মাস্ক বলেন ‘লেট দ্যাট সিঙ্ক ইন!’ বাংলায় এর অর্থ, ধীরে ধীরে বিষয়টা বোঝার চেষ্টা করুন, মেনে নিন। প্রকৃত অর্থে মাস্ক টুইটার আদৌ কিনতে পারবেন কি না, এ নিয়ে যাঁরা সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন, তাঁদের উদ্দেশেই এই বার্তা দিলেন মাস্ক।

গত এপ্রিল মাসে ৪ হাজার ৪০০ কোটি ডলার ব্যয়ে টুইটার কেনার কথা ঘোষণা করেছিলেন ইলন। কিন্তু ভুয়া অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার ক্ষেত্রে টুইটার যথাযথ পদক্ষেপ নিচ্ছে না বলে দাবি করে সেই চুক্তি থেকে সরে আসেন তিনি। তার পরেই হুহু করে কোম্পানির শেয়ারের দর পড়তে থাকে। এর পরেই আইনি লড়াই শুরু হয়। মাস্ক টুইটার কিনতে পারবেন কি না, তা নিয়েও সংশয় দেখা যায়। তবে শেষমেশ সব জল্পনাকল্পনা উড়িয়ে টুইটারের মালিক হলেন মাস্ক।