বাজারসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, এদিন সকালে শেয়ারবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগসীমা নিয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের এক বৈঠককে ঘিরে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে একধরনের আগ্রহ তৈরি হয়। বাজারে এ রকম খবর ছড়িয়ে পড়ে যে ব্যাংকের বিনিয়োগসীমা বাজারমূল্যে, নাকি ক্রয়মূল্যে হিসাব হবে—এ নিয়ে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষকে নিয়ে বৈঠকে বসছে অর্থ মন্ত্রণালয়। অর্থ মন্ত্রণালয়ের একজন অতিরিক্ত সচিবের সভাপতিত্বে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে মূলত ব্যাংক কোম্পানি আইন নিয়ে আলোচনা হয়। তবে শেয়ারবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগ শেয়ারের ক্রয়মূল্য নাকি বাজারমূল্যে হিসাব করা হবে, এ ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত বা আলোচনা হয়নি। নিয়মিত বৈঠকের অংশ হিসেবেই অর্থ মন্ত্রণালয়ে সভাটি হয়। এতে অংশ নেওয়া সংস্থাগুলোর নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের কোনো কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন না।

এ বিষয়ে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কমিশনার শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘অর্থ মন্ত্রণালয়ের বৈঠকে ব্যাংক কোম্পানি আইন সংশোধনের বিষয়ে আলাপ–আলোচনা হয়েছে। আমার জানামতে, ওই বৈঠকে শেয়ারবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগসীমা নিয়ে কোনো সিদ্ধান্ত বা আলোচনা হয়নি। এটি ছিল ব্যাংক কোম্পানি আইনের সংশোধন নিয়ে দীর্ঘদিনের ধারাবাহিক বৈঠকেরই অংশ।’

ঢাকার বাজারে গতকাল লেনদেনের পরিমাণ ছিল ৮৩৮ কোটি টাকা, যা আগের দিনের চেয়ে প্রায় ২০০ কোটি টাকা বেশি। শুধু তা–ই নয়, ৫ জুলাইয়ের পর এটিই ডিএসইতে সর্বোচ্চ লেনদেন।

শেয়ারবাজার থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন