গত ২০২০ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়ার পর ওয়ালটন প্রথমবারের মতো লোকসান গুনেছে গত প্রান্তিকে। এ সময়ে মূলত বিশ্ব ও দেশের অর্থনীতিতে বড় ধরনের সংকট দেখা দেয়।

গত ফেব্রুয়ারিতে শুরু হওয়া রাশিয়া–ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে বিশ্ববাজারে শিল্পের কাঁচামালের দাম হু হু করে বাড়তে থাকে। সেই সঙ্গে বেড়ে যায় জাহাজভাড়া। পাশাপাশি দেশে ডলার–সংকটও প্রকট হয়ে উঠে গত জুলাই–সেপ্টেম্বর সময়ে। তাতে টাকার মান কমতে থাকে। বাজারে সব ধরনের জিনিসপত্রের দাম বেড়ে যায়।

বাজারে নিত্যপণ্যসহ সব ধরনের জিনিসপত্রের দাম বেড়ে যাওয়ায় অতি প্রয়োজনীয় কেনাকাটা ছাড়া অন্যান্য কেনাকাটা কমিয়ে দেয় দেশের মানুষ। এতে বড় ধরনের নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে ওয়ালটনের বিক্রিতে।

এ কারণে আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে প্রায় আড়াই শ কোটি টাকার বিক্রি কমে যায় কোম্পানিটির। এদিকে কমেছে বিক্রি, অন্যদিকে বেড়েছে কাঁচামালসহ উৎপাদনের খরচ। সব মিলিয়ে কোম্পানিটি গত তিন মাসে বড় ধরনের লোকসান করেছে।