প্রাক্‌-লেনদেন সুবিধা বাতিলের চার মাসের মাথায় সেটি আবার চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএসইসি। জানা গেছে, প্রাক্‌-লেনদেন সুবিধা চালুর জন্য দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পক্ষ থেকে অনুরোধ জানানো হয়। কারণ, সুবিধাটি বাতিলের পর লেনদেন শুরুর সঙ্গে সঙ্গে বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ ক্রয় বা বিক্রয়াদেশ আসছে। একসঙ্গে এত আদেশ কার্যকর করতে গিয়ে লেনদেন যন্ত্রে বাড়তি চাপ তৈরি হচ্ছে। এতে যেকোনো সময় বড় ধরনের কারিগরি সমস্যা দেখা দিতে পারে বলে আশঙ্কা করছে ডিএসই। এ কারণে সংস্থাটি প্রাক্‌-লেনদেন সুবিধা চালুর জন্য বিএসইসির কাছে আবেদন জানায়।

ডিএসইর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আগামী রোববার থেকে আবারও ৫ মিনিট প্রাক্‌-লেনদেনের সুবিধা চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএসইসি। জানতে চাইলে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম প্রথম আলোকে বলেন, শেয়ারবাজারে এখন লেনদেনের পরিমাণ অনেক বেড়েছে। তাতে বিনিয়োগকারীদের ক্রয় বা বিক্রয়াদেশের পরিমাণও বেড়ে গেছে। ফলে লেনদেন শুরুর সঙ্গে সঙ্গে অনেক আদেশ একত্রে জমা হচ্ছে লেনদেন যন্ত্রে। একসঙ্গে বিপুল পরিমাণ ক্রয় বা বিক্রয়াদেশ আসার কারণে বাড়তি চাপ তৈরি হয়েছে। এ চাপ সামাল দিতে ৫ মিনিটের জন্য প্রাক্‌-লেনদেন সুবিধা চালু করা হয়েছে।

বিএসইসি সূত্রে জানা গেছে, এর আগে যখন শেয়ারবাজারে ১৫ মিনিটের প্রাক্‌-লেনদেন সুবিধা চালু ছিল, তখন সুবিধা কাজে লাগিয়ে একশ্রেণির বিনিয়োগকারী শেয়ারের দাম বাড়াতে বা কমাতে ভুয়া ক্রয় ও বিক্রয়াদেশ দিয়ে আসছিলেন। এ ধরনের ভুয়া আদেশের মাধ্যমে শেয়ারের দামকে প্রভাবিত করা হচ্ছিল। এ কারণে ব্যবস্থাটি সাময়িক সময়ের জন্য বাতিল করা হয়। প্রাক্‌-লেনদেনব্যবস্থা তুলে নেওয়া হলেও ১৫ মিনিটের পোস্ট লেনদেনব্যবস্থাটি বহাল রাখা হয়েছিল। বর্তমানে বেলা ১টা ৫০ মিনিটে মূল লেনদেন শেষে ১৫ মিনিটের পোস্ট লেনদেন চলে দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জে।

শেয়ারবাজার থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন