দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আজ সোমবার এ তথ্য প্রকাশ করেছে বেক্সিমকো লিমিটেড। কোম্পানি সূত্রে জানা গেছে, সেকেন্ডারি বাজার থেকে শেয়ার কিনে সরকারি প্রতিষ্ঠানটিতে বিনিয়োগ করেছে বেক্সিমকো। গ্রুপটি এখন বিএসসির পরিচালনা পর্ষদে যুক্ত হতে চায়। সম্প্রতি বেক্সিমকো পরিচালনা পর্ষদে এ সিদ্ধান্ত হয়েছে।

বেক্সিমকো জানিয়েছে, শেয়ারবাজার থেকে বিএসসির ৮০ লাখ ৮ হাজার শেয়ার কিনেছে বেক্সিমকো, যা বিএসসির মোট শেয়ারের ৫ দশমিক ২৫ শতাংশ। কোম্পানি সূত্রে জানা গেছে, গত কয়েক মাসে শেয়ারবাজার থেকে বাজারমূল্যে এসব শেয়ার কেনা হয়েছে। ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, গত তিন মাসে বিএসসির শেয়ারের বাজারমূল্য ছিল সর্বনিম্ন ১১৬ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ১৬৯ টাকা। যদি বিএসসির শেয়ারের ১১৬ টাকার দামকে বিবেচনায় নেওয়া হয়, তাহলে কোম্পানিটিতে বেক্সিমকোর বিনিয়োগ দাঁড়ায় প্রায় ৯৩ কোটি টাকা। আর ১৬৯ টাকা বাজারমূল্যকে বিবেচনায় নিলে এ বিনিয়োগের পরিমাণ বেড়ে দাঁড়ায় ১৩৫ কোটি টাকায়।

জানতে চাইলে বেক্সিমকো লিমিটেডের কোম্পানি সচিব মোহাম্মদ আসাদ উল্লাহ প্রথম আলোকে বলেন, সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন কোম্পানির শেয়ারে বেক্সিমকোর বিনিয়োগ রয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় শেয়ারবাজার থেকে শেয়ার কিনে বিএসসিতে দীর্ঘ মেয়াদে বিনিয়োগ করা হয়েছে। এখন বেক্সিমকোর পরিচালনা পর্ষদ সিদ্ধান্ত নিয়েছে এ শেয়ারের মালিকানার বিপরীতে বিএসসির পর্ষদে যুক্ত হওয়ায়। এ জন্য প্রক্রিয়া শুরু করবে কোম্পানিটি।

নিয়ম অনুযায়ী, শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত কোনো কোম্পানির পরিচালক হতে হলে ওই কোম্পানির ন্যূনতম ২ শতাংশ মালিকানা থাকতে হয়। সেই নিয়ম পরিপালন করেই বেক্সিমকো এখন বিএসসির পর্ষদে যুক্ত হতে আগ্রহী।

এদিকে দেশের চলমান অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে ভালো ব্যবসা করছে বিএসসি। মূলত জাহাজভাড়া বেড়ে যাওয়ায় কোম্পানিটি বড় ধরনের মুনাফায় রয়েছে। সর্বশেষ গত জুনে সমাপ্ত অর্থবছরে বিএসসি শেয়ারপ্রতি ১৪ টাকা ৮০ পয়সা মুনাফা করেছে। আগের বছর অর্থাৎ ২০২০-২১ অর্থবছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা ছিল মাত্র ৪ টাকা ৭২ পয়সা। সেই হিসাবে এক বছরের ব্যবধানে বিএসসির শেয়ারপ্রতি মুনাফা তিন গুণের বেশি বেড়েছে। আর গত এক বছরে কোম্পানিটির শেয়ারের দাম ৪৬ টাকা থেকে বেড়ে আজ দিন শেষে দাঁড়িয়েছে ১২৩ টাকায়।