ধরা যাক, ‘এ’ কোম্পানির শেয়ারের ফ্লোর প্রাইস ৫০ টাকা। নতুন নিয়মের ফলে ব্লক মার্কেটে একজন বিনিয়োগকারী ওই শেয়ার ১০ শতাংশ বা ৫ টাকা কমে কেনাবেচার সুযোগ পাবেন। ব্লক মার্কেটে সাধারণত ক্রেতা-বিক্রেতা আগে থেকে নির্ধারিত থাকে। ক্রেতা-বিক্রেতার সমঝোতার ভিত্তিতে ব্লক মার্কেটে শেয়ারের দামও আগে থেকে ঠিক করে নেওয়া হয়।  

বিএসইসির সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, বাজারে তারল্য সরবরাহ বাড়াতেই মূলত এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বর্তমানে মূল বাজারে লেনদেন হওয়া সিংহভাগ শেয়ারের দামই ফ্লোর প্রাইসে নেমে গেছে। তাতে বাজারে লেনদেন কমে গেছে। ফ্লোর প্রাইসে থাকা বেশির ভাগ শেয়ারেরই তেমন কোনো লেনদেন হচ্ছে না অনেক দিন ধরে। এর মধ্যে ভালো মৌলভিত্তির অনেক শেয়ারের লেনদেন বন্ধ হয়ে গেছে। তাতে এসব শেয়ারের প্রাতিষ্ঠানিক ও ব্যক্তিশ্রেণির বিনিয়োগকারীদের একটি বড় অংশের বিনিয়োগ আটকে গেছে। এ অবস্থায় ওই সব বিনিয়োগকারীর আটকে থাকা অর্থ দৈনন্দিন লেনদেনে ফিরিয়ে আনতে নতুন এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।