default-image

চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকেও যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি ভালো করেছে। জানুয়ারি-মার্চ সময়ে দেশটির প্রবৃদ্ধির হার দাঁড়িয়েছে বার্ষিক হিসাবে ৬ দশমিক ৪ শতাংশ। গত বছরের শেষ প্রান্তিকে প্রবৃদ্ধির হার ছিল ৪ দশমিক ৩ শতাংশ।

প্রবৃদ্ধির এই উন্নতির অন্যতম কারণ হলো অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারে নাগরিকদের জন্য প্রচুর ব্যয় করেছে সরকার। তাই ২০২০ সালে ব্যাপক সংকোচনের পরও খুব দ্রুত ঘুরে দাঁড়িয়েছে অর্থনীতি। তবে মহামারি থেকে পুরোপুরি ঘুরে দাঁড়াতে কয়েক বছর সময় লেগে যাবে।

বিশ্লেষকেরা বলছেন, ইতিহাসের অন্যতম দ্রুত অর্থনৈতিক 'ভি' শেপ অর্জন করছি আমরা। প্রথমে গভীর মন্দা এবং মাত্র পাঁচ প্রান্তিকের মধ্যে দ্রুত পুনরুদ্ধার।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন কোভিড-১৯ অতিমারি মোকাবিলায় ইতিমধ্যে ১ দশমিক ৯ ট্রিলিয়ন, অর্থাৎ ১ লাখ ৯০ হাজার কোটি মার্কিন ডলারের রিলিফ প্যাকেজ বা ত্রাণ কর্মসূচি পাস করেছেন এবং অবকাঠামো খাতের জন্য আরও দুই ট্রিলিয়ন বা দুই লাখ কোটি ডলারের বড় পরিকল্পনা নেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন। আশা করা হচ্ছে এই দুটি কর্মসূচি ও পরিকল্পনার সুফল মিলবে অর্থনীতিতে। সম্প্রতি আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) পূর্বাভাস দিয়েছে যে, এ বছর যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতিতে ৬ দশমিক ৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হবে। গতকাল প্রকাশিত দেশটির সরকারি পরিসংখ্যানের তথ্যও সেদিকে ইঙ্গিত দিচ্ছে।

বিজ্ঞাপন
বিশ্ববাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন