এনবিআর সূত্রে জানা গেছে, ১ থেকে ১৭ নভেম্বর পর্যন্ত পাঁচ লাখের মতো করদাতা রিটার্ন জমা দিয়েছেন। এর আগে গত চার মাসে প্রায় সাড়ে তিন লাখ করদাতা রিটার্ন দিয়েছেন।

এ ছাড়া অনলাইনেও রিটার্ন দেওয়ার সুযোগ আছে। এখন পর্যন্ত অনলাইনে প্রায় ৭৫ হাজার করদাতা রিটার্ন দিয়েছেন। সব মিলিয়ে প্রায় সোয়া ৯ লাখ রিটার্ন জমা পড়েছে। ৭০ লাখের বেশি করদাতা এখনো রিটার্ন জমা দেননি। অবশ্য শেষ মুহূর্তে রিটার্ন জমার হিড়িক পড়ে। প্রতিবছর ২৫ লাখের মতো করদাতার রিটার্ন জমা পড়ে।

আয়কর বিভাগের কর্মকর্তারা বলছেন, শেষ সপ্তাহেই অর্ধেক রিটার্ন জমা পড়ে। তখন কর কার্যালয়ে ভিড় দেখা যায়। এবার রিটার্ন দাখিলের সময় বাড়ানোর চিন্তাভাবনা আপাতত নেই।

এদিকে রিটার্ন জমার সময় বাড়ানোর আবেদন আসছে এনবিআরে। গত রোববার ঢাকা ট্যাক্সেস বার অ্যাসোসিয়েশন রিটার্ন জমার সময় আরও দুই মাস বাড়ানোর আবেদন করেছে। এনবিআর চেয়ারম্যান আবু হেনা রহমাতুল মুহিমের কাছে অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো. জাকারিয়া খান এই আবেদন করেন। চিঠিতে রিটার্ন দাখিলের সময় আরও দুই মাস বাড়ানোর আবেদন করেছে আইনজীবীদের এই সংগঠন।