বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

৪৩তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, সিলেট, রংপুর ও ময়মনসিংহ কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হবে। আর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, সাতক্ষীরার কয়েকটি পদের লিখিত পরীক্ষা সাতক্ষীরায় হবে। বাকি সব প্রতিষ্ঠানের পরীক্ষা নেওয়া হবে ঢাকায়। ৯টি প্রতিষ্ঠানের নিয়োগ পরীক্ষা হবে সকালে, একটি প্রতিষ্ঠানের দুপুরে ও চারটি প্রতিষ্ঠানের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে বিকেলে। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) একটি পদের ব্যবহারিক ছাড়া বাকি সবগুলো প্রতিষ্ঠানের লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হবে।

প্রতিষ্ঠানগুলোর ওয়েবসাইট থেকে পাওয়া সূচি অনুযায়ী, কাল শুক্রবার ৪৩তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা, বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড, বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, সাতক্ষীরার বিভিন্ন পদের লিখিত পরীক্ষা সকাল ১০টা থেকে শুরু হবে।

সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ এবং মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পরীক্ষা শুরু হবে বেলা সাড়ে ১১টায়। বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন করপোরেশনের দুটি পদের মৌখিক পরীক্ষা শুরু হবে বেলা ২টা ৩০ মিনিটে।

শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের পরীক্ষা শুরু বেলা ৩টায় এবং ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড ও বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) বিভিন্ন পদের পরীক্ষা শুরু হবে বেলা সাড়ে ৩টা থেকে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক চাকরিপ্রার্থী প্রথম আলোকে বলেন, চাকরিপ্রার্থীদের ভোগান্তিতে ফেলে একই দিনে সব পরীক্ষা নিয়ে নেওয়া হচ্ছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে সামান্যতম সমন্বয় থাকলে আমাদের এই ভোগান্তিতে পড়তে হতো না। পর্যাপ্ত প্রস্তুতি থাকা সত্ত্বেও একই সময়ে পরীক্ষা পড়ার কারণে আমার মতো অনেকেই ভালো ভালো চাকরির পরীক্ষায় বসতে পারছে না।

সরকারি কর্ম কমিশন পিএসসির জনসংযোগ দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, ৪৩তম বিসিএসে আবেদন জমা পড়েছে ৪ লাখ ৩৫ হাজার ১৯০টি। এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আবেদন জমা পড়েছিল ৪১তম বিসিএসে। ওই বিসিএসে ৪ লাখ ৭৫ হাজারের বেশি প্রার্থী আবেদন করেছিলেন।

চাকরি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন