বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জনসংযোগ কর্মকর্তা হাসান মাহমুদ আজ সোমবার দুপুরে প্রথম আলোকে, শিল্পকলা একাডেমির নিয়োগ বিধিমালা অনেক পুরোনো। সেই নীতিমালায় কিছু কিছু পদে শিক্ষাগত যোগ্যতা কম ছিল। দীর্ঘদিন ধরে নীতিমালা সংশোধনের কাজ চলছে। এখন প্রায় শেষ পর্যায়ে। শিগগিরই নতুন নীতিমালা প্রণয়ন করা হবে। নতুন নীতিমালায় সব পদে নিয়োগ দেওয়া হবে।

হাসান মাহমুদ বলেন, পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের দিনই কিছু পদে যোগ্যতার ক্ষেত্রে অসংগতিগুলো মন্ত্রণালয়ের নজরে আসে। অনলাইনে আবেদন করার প্রক্রিয়া বন্ধ রাখা হয়েছিল, ফলে কোনো প্রার্থী আবেদন করতে পারেননি। এসব পদের নতুন বিজ্ঞপ্তি আগামী দুই-তিন মাসের মধ্যে প্রকাশ করা হবে।

গত ২৩ অক্টোবর ৮ ক্যাটাগরির ২০টি শূন্য পদের জন্য আবেদনপত্র চেয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছিল বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি। পদগুলো হলো—সহকারী পরিচালক (সংগীত), সহকারী সচিব, সহকারী পরিচালক (পিএস), যন্ত্রশিল্পী (গ্রেড-৩), নৃত্যশিল্পী (গ্রেড-৩), সহকারী জনসংযোগ কর্মকর্তা, প্রপসম্যান ও অফিস সহায়ক।

এর মধ্যে যন্ত্রশিল্পী ও নৃত্যশিল্পী পদে সর্বনিম্ন শিক্ষাগত যোগ্যতা চাওয়া হয়েছিল এসএসসি পাস। যন্ত্রশিল্পী হিসেবে তিন বছরের স্টেজ পারফরম্যান্সের অভিজ্ঞতা ও নৃত্যশিল্পী হিসেবে পাঁচ বছরের স্টেজ পারফরম্যান্সের অভিজ্ঞতা চাওয়া হয়েছিল।

জনসংযোগ কর্মকর্তা হাসান মাহমুদ বলেন, আগে এই ধরনের পদে একাডেমিক সনদধারী ব্যক্তি তেমন পাওয়া যেত না। তাই শিক্ষাগত যোগ্যতা কম ছিল। নতুন নীতিমালায় শিক্ষাগত যোগ্যতার ক্ষেত্রে পরিবর্তন আনা হয়েছে। তাই নতুন করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে।