১. নমুনা মোতাবেক দুই কপি যোগদানপত্র। যোগদানপত্রের নমুনা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে।

২. ৩০০ টাকা মূল্যের নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে অঙ্গীকারনামা।

৩. নিয়োগপত্রের সত্যায়িত একটি ফটোকপি।

যোগদানের তারিখ থেকে দুই বছর পর্যন্ত প্রার্থীদের শিক্ষানবিশকাল হিসেবে গণ্য হবে। শিক্ষানবিশকালে যেকোনো ধরনের অসদাচরণের জন্য কোনো কারণ দর্শানো ছাড়াই চাকরি থেকে অপসারণ করতে পারবে কর্তৃপক্ষ।

নিয়োগপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা জাতীয় বেতন স্কেলের ১৩তম গ্রেড অনুসারে বেতন পাবেন।
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগের চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করা হয় গত ১৪ ডিসেম্বর। এতে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত হন ৩৭ হাজার ৫৭৪ জন।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রমের ইতিহাসে এটিই এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি। ২০২০ সালের ২৫ অক্টোবর অনলাইনে আবেদন শুরু হয়। আবেদন করেন ১৩ লাখ ৯ হাজার ৪৬১ প্রার্থী।