জানতে চাইলে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শাহ রেজওয়ান হায়াত প্রথম আলোকে বলেন, শিক্ষক নিয়োগের কাজ চলমান। আগামী মাসের দ্বিতীয় বা তৃতীয় সপ্তাহে এটি প্রকাশ করা হতে পারে। পদ বাড়বে কি না, সে বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত পদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়নি। এটি করতে হলে মন্ত্রণালয় থেকে সিদ্ধান্ত আসতে হবে। সেটি আসেনি। তাই পদ বাড়ছে কি না, এখনই বলা যাচ্ছে না।

বর্তমানে সারা দেশে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় আছে ৬৫ হাজার ৫৬৬টি। এগুলোয় মোট শিক্ষক আছেন প্রায় পৌনে চার লাখ। এখন নতুন করে আরও ৪৫ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া চলছে।

এ নিয়োগে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা তিন ধাপে নেওয়া হলেও চূড়ান্ত ফলাফল একবারেই প্রকাশ করা হবে। প্রথম ধাপের লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন ৪০ হাজার ৮৬২ জন, দ্বিতীয় ধাপে ৫৩ হাজার ৫৯৫ এবং তৃতীয় ধাপে ৫৭ হাজার ৩৬৮ জন। এ নিয়োগ পরীক্ষায় আবেদন করেন ১৩ লাখ ৯ হাজার ৪৬১ প্রার্থী।