বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি) ৪১তম ও ৪২তম বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করেছে। ৪১তম বিসিএসের প্রিলিমিনারী পরীক্ষার হবে ১৯ মার্চে। আর ২৬ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে ৪২তম বিসিএস প্রিলিমিনারী পরীক্ষা। পাশাপাশি ব্যাংকের পরীক্ষাও আসছে মাসগুলোতে হবে। এসব পরীক্ষায় যারা অংশ নিচ্ছেন তাদের জন্যই প্রথম আলো অনলাইনের এ আয়োজন
default-image

১. কোনটি পর্তুগিজ শব্দ নয়?
ক. আনারস খ. কামরা গ. অজুহাত ঘ. আচার
উ. গ
ব্যাখ্যা: কিছু শব্দ বিদেশি ভাষা থেকে বাংলায় এসেছে, যেগুলোকে বিদেশি শব্দ বলে। বিদেশি শব্দের মধ্যে আরবি, ফারসি, ইংরেজি, তুর্কি, পর্তুগিজ, ওলন্দাজ, হিন্দি, চীনা, জাপানিজ ইত্যাদি শব্দের প্রভাব বাংলা ভাষায় বেশি পরিলক্ষিত হয়। প্রদত্ত প্রশ্নের ‘অজুহাত’ পর্তুগিজ শব্দ নয়; এটি আরবি শব্দ। অন্যদিকে আনারস, কামরা, আচার পর্তুগিজ শব্দ।
২. তৎসম শব্দের ব্যবহার কোথায় বেশি?
ক. চলতি রীতিতে খ. আঞ্চলিক রীতিতে গ. মিশ্র রীতিতে ঘ. সাধু রীতিতে
উ. ঘ
ব্যাখ্যা: তৎসম বা সংস্কৃত ভাষা থেকে উৎপন্ন ভাষাকে সাধু ভাষা বলে। ভাষার সাধুরীতি তৎসম শব্দবহুল অর্থাৎ সাধুরীতিতে তৎসম শব্দের ব্যবহার বেশি হয়। বাংলা গদ্যের প্রাথমিক যুগে অর্থাৎ উনিশ শতকে সাধুরীতির ব্যাপক প্রচলন ছিল। এ রীতির বৈশিষ্ট্যসমূহ নিম্নরূপ:
§ গুরুগম্ভীর ও তৎসম শব্দবহুল
§ ব্যাকরণের সুনির্ধারিত নিয়ম মেনে চলে
§ নাটকের সংলাপ ও বক্তৃতায় অনুপযোগী
৩. ‘ব্যাকরণ মঞ্জরী’ কার রচনা?
ক. ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ খ. ড. মুহম্মদ এনামুল হক
গ. ড. সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায় ঘ. মুহম্মদ আবদুল হাই
উ. খ
ব্যাখ্যা: ‘ব্যাকরণ মঞ্জরী’ বইটি ড. মুহম্মদ এনামুল হক রচনা করেন। তাঁর আরও দুটি উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ: ‘মনীষা মঞ্জুষা’ ও ‘বঙ্গে সূফী প্রভাব’। এ ছাড়া ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ—‘বাঙ্গালা ব্যাকরণ’; ড.  সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায়—‘ভাষা–প্রকাশ বাঙ্গালা ব্যাকরণ’ এবং মুহম্মদ আবদুল হাই—‘ভাষা ও সাহিত্য’ নামক ব্যাকরণ গ্রন্থ রচনা করেন।
৪. ‘কাজটি ভালো দেখায় না’ এই বাক্যের ‘দেখায়’ ক্রিয়াটি কোন ধাতুর উদাহরণ?
ক. মৌলিক ধাতুর খ. কর্মবাচ্যের ধাতুর গ. নামধাতুর ঘ. প্রযোজক ধাতুর উ. খ
ব্যাখ্যা: ক্রিয়ার মূলকে ধাতু বলে। যেসব ধাতুকে বিশ্লেষণ করা যায় না, সেগুলোকেই মৌলিক ধাতু বলে। মৌলিক ধাতুর সঙ্গে ‘আ’ প্রত্যয় যুক্ত হয়ে কর্মবাচ্যের ধাতু সাধিত হয়। এবং এটি বাক্যস্থিত কর্মপদের অনুসারী ক্রিয়ার ধাতু। যেমন: দেখ‍্+আ=দেখা (কর্মবাচ্যের ধাতু)।
৫. ‘মুখচন্দ্র’ কোন সমাস?
ক. উপমিত কর্মধারয় খ. উপমান কর্মধারয় গ. রূপক কর্মধারয় ঘ. মধ্যপদলোপী কর্মধারয় উ. ক
ব্যাখ্যা: উপমেয় (যাকে তুলনা করা হয়) পদের সঙ্গে উপমান (যার সঙ্গে তুলনা করা হয়) পদের সমাসকে উপমিত কর্মধারয় সমাস বলে। যেমন: মুখচন্দ্র=মুখ চন্দ্রের ন্যায়। পুরুষসিংহ=পুরুষ সিংহের ন্যায়। বাহুলতা=বাহু লতার ন্যায় ইত্যাদি। অন্যদিকে তুষারশুভ্র=তুষারের ন্যায় শুভ্র (উপমান কর্মধারয়)। মনমাঝি=মনরূপ মাঝি (রূপক কর্মধারয়) এবং সিংহাসন=সিংহ চিহ্নিত আসন (মধ্যপদলোপী কর্মধারয়)।
৬. ‘আমার পরিচয়’ কার রচনা?
ক. শামসুর রাহমান খ. সৈয়দ শামসুল হক গ. রফিক আজাদ ঘ. হাসান হাফিজুর রহমান উ. খ
ব্যাখ্যা: সৈয়দ শামসুল হকের বিখ্যাত কবিতা ‘আমার পরিচয়’। কবিতাটি তাঁর ‘কিশোর কবিতা সমগ্র’ থেকে সম্পাদিত আকারে চয়ন করা হয়েছে। কবিতাটির মাধ্যমে লেখক বাঙালি জাতির বর্তমান অবস্থার পেছনের বর্ণিল ইতিহাসের কথা তুলে ধরেছেন। ইতিহাসের ধারাবাহিক বিবর্তনে বাঙালি জাতি সেই সুদীর্ঘ সংগ্রামী ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতির পরিচয় এবং কৃতী সন্তানদের যেন ভুলে না যায়, সেই শ্রদ্ধাবোধ থেকেই তিনি কবিতাটি রচনা করেছেন।
৭. ‘স্বাধীনতা তুমি’ কবিতাটি কোন কাব্যগ্রন্থের অন্তর্গত?
ক. বাংলাদেশ স্বপ্ন দ্যাখে খ. বন্দী শিবির থেকে গ. বিধ্বস্ত নীলিমা ঘ. নিজ বাসভূমে উ.  খ
ব্যাখ্যা: কবি শামসুর রাহমানের (মজলুম আদিব) অন্যতম কাব্যগ্রন্থ ‘বন্দী শিবির থেকে’ কাব্যগ্রন্থের বিখ্যাত কবিতা ‘স্বাধীনতা তুমি’। মুক্তিযুদ্ধকালে বাংলাদেশ যখন রক্তাক্ত, অবরুদ্ধ তখনই শামসুর রাহমান রচনা করেন ‘স্বাধীনতা তুমি’ এবং ‘তোমাকে পাওয়ার জন্য হে স্বাধীনতা’ নামক কবিতা দুটি। ‘স্বাধীনতা তুমি’ কবিতাটির দুটি কালজয়ী চরণ: ‘স্বাধীনতা তুমি রবিঠাকুরের অজর কবিতা, অবিনাশী গান।’ স্বাধীনতা তুমি কাজী নজরুল ঝাঁকড়া চুলের বাবরি দোলানো…
৮. ‘বৃত্তি’ অর্থে ‘ই’ প্রত্যয়যুক্ত কোন শব্দে?
ক. জমিদারি খ. পোদ্দারি গ. উমেদারি ঘ. সরকারি উ. খ
ব্যাখ্যা: বাংলা তদ্ধিত প্রত্যয় অনুযায়ী পেশা বা বৃত্তি অর্থে ই/ঈ প্রত্যয় ব্যবহৃত হয়। যেমন: পোদ্দার+ই=পোদ্দারি; দোকান+ই=দোকানি এবং কাগজ+ই=কাগজি।
৯. ‘বাবা’ কোন ভাষা থেকে আগত শব্দ?
ক. সংস্কৃত খ. হিন্দি গ. তুর্কি ঘ. পর্তুগিজ উ.  গ
ব্যাখ্যা: বিদেশি শব্দের মধ্যে আরবি, ফরাসি, ফারসি, ইংরেজি, তুর্কি, পর্তুগিজ, ওলন্দাজ, হিন্দি, চীনা, জাপানিজ ইত্যাদি শব্দের প্রভাব বাংলা ভাষায় বেশি পরিলক্ষিত হয়। প্রদত্ত প্রশ্নের ‘বাবা’ তুর্কি শব্দ। আরও কিছু তুর্কি শব্দ হলো: বাবুর্চি, বেগম, দারোগা, উজবুক, মোগল, কুলি, কোর্মা, ঠাকুর ইত্যাদি। অন্যদিকে—
• তৎসম বা সংস্কৃত শব্দ: চন্দ্র, সূর্য, নক্ষত্র, ভবন, গৃহিণী, জ্যোৎস্না, বৈষ্ণব, কৃষ্ণ, ক্ষুধা ইত্যাদি।
• হিন্দি শব্দ: চানাচুর, মিঠাই, পুরি, পানি, বাচ্চা, দাদা, নানা, কাহিনি, টহল, বার্তা ইত্যাদি।
• পর্তুগিজ শব্দ: আনারস, আলপিন, আলকাতরা, আলমারি, ইংরেজ, গোলাপ, গির্জা, গুদাম, পেয়ারা, পেঁপে, পাউরুটি, পেরেক, কেরানি, বালতি ইত্যাদি।
১০. ‘আমি বাংলায় গান গাই, আমি বাংলার গান গাই’ গানের সুরকার ও গীতিকার কে?
ক. নচিকেতা ঘোষ খ.  মাহমুদুর রহমান গ. গৌরীপ্রসন্ন মজুমদার ঘ. প্রতুল মুখোপাধ্যায় উ. ঘ
ব্যাখ্যা: ‘আমি বাংলায় গান গাই, আমি বাংলার গান গাই’ গানটির সুরকার ও গীতিকার ভারতীয় শিল্পী ও কবি প্রতুল মুখোপাধ্যায়। এ ছাড়া তিনিই গানটির মূল গায়ক।
১১. দ্বারা, দিয়া, কর্তৃক বাংলা ব্যাকরণ অনুযায়ী কোন বিভক্তি?
ক. তৃতীয়া খ. প্রথমা গ. দ্বিতীয়া ঘ. শূন্য উ. ক
ব্যাখ্যা: বাক্যস্থিত একটি শব্দের সঙ্গে অন্য শব্দের অন্বয় সাধনের জন্য শব্দের সঙ্গে যেসব বর্ণ যুক্ত হয়, তাদের বিভক্তি বলে। বিভক্তিসমূহ ক্রিয়াপদের সঙ্গে নাম পদের সম্পর্ক স্থাপন করে। যেমন: তন্ময় মন দিয়ে পড়াশোনা করে। এখানে নামপদের সঙ্গে ক্রিয়াপদ তৃতীয়া বিভক্তি ‘দিয়ে’র মাধ্যমে যুক্ত হয়েছে। বাংলা শব্দে বিভক্তি সাত প্রকার। যথা:
বিভক্তি চিহ্ন
প্রথমা/শূন্য শূন্য (০), অ
দ্বিতীয়া কে, রে
তৃতীয়া দ্বারা, দিয়া, কর্তৃক
চতুর্থী কে, রে
পঞ্চমী হতে, থেকে, চেয়ে
ষষ্ঠী র, এর
সপ্তমী এ, অ, তে, এতে
১২. কোনটি মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক কাব্যগ্রন্থ?
ক. যখন উদ্যত সঙ্গীন খ. একাত্তরের ডায়েরী গ. চৌচির ঘ. নিষিদ্ধ লোবান উ. ক
ব্যাখ্যা: ‘যখন উদ্যত সঙ্গীন’ (১৯৭২) হাসান হাফিজুর রহমানের মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক কাব্যগ্রন্থ।এ ছাড়া মহিলা কবি বেগম সুফিয়া কামালের মুক্তিযুদ্ধকালীন দিনলিপি ‘একাত্তরের ডায়েরী’; আবুল ফজলের বিখ্যাত গ্রন্থ ‘চৌচির’এবং সৈয়দ শামসুল হকের মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক উপন্যাস ‘নিষিদ্ধ লোবান’।
১৩. ‘শরতের শিশির’ বাগ্ধারার অর্থ—
ক. সুসময়ের বন্ধু খ.  সুসময়ের সঞ্চয় গ. শরতের শোভা ঘ. কোনোটিই নয় উ. ক
ব্যাখ্যা: ‘শরতের শিশির’ বাগ্ধারার অর্থ সুসময়ের বন্ধু বা ক্ষণস্থায়ী।
১৪. ‘সর্বাঙ্গীণ’ শব্দের প্রকৃতি প্রত্যয়—
ক. সর্ব+ঈন খ.সর্ব+অঙ্গীন গ. সর্ব‍াঙ্গ+ঈন ঘ. সর্ব+ইন উ. গ
ব্যাখ্যা: তৎসম বা সংস্কৃত শব্দের সঙ্গে যুক্ত প্রত্যয়কে সংস্কৃত তদ্ধিত প্রত্যয় বলে।যেমন: সর্বাঙ্গ+ঈন্(নীন)=সর্বাঙ্গীণ।এরূপ– কুল+ঈন্(নীন)=কুলীন;সর্বজন+ঈন্(নীন)=সর্বজনীন;অভ্যন্তর+ঈন্(নীন)=অভ্যন্তরীণ;নব+ঈন্(নীন)=নবীন ইত্যাদি।
১৫. কোন শব্দযুগল বিপরীতার্থক নয়?
ক. ঐচ্ছিক–অনাবশ্যিক খ. কুটিল–সরল গ. কম–বেশি ঘ. কদাচার–সদাচার উ. ক
ব্যাখ্যা: ঐচ্ছিক অর্থ: ইচ্ছানুযায়ী, অবশ্যপাঠ্য নয়, আবশ্যিক নয়। সুতরাং ঐচ্ছিক–অনাবশ্যিক সমার্থক শব্দ। শব্দ দুটির বিপরীতার্থক শব্দ আবশ্যিক। অন্যদিকে কুটিল–সরল; কম–বেশি এবং কদাচার–সমাচার বিপরীতার্থক শব্দ।
১৬. ‘প্রোষিতভর্তৃকা’–এর অর্থ—
ক. যে নারীকে ভর্ৎসনা করা হয়েছে খ. যে নারীর স্বামী বিদেশে থাকে
গ. ভূমিতে প্রোথিত তরু ঘ. যে বিবাহিত নারী পিত্রালয়ে থাকে উ. খ
ব্যাখ্যা: যে নারীর স্বামী বিদেশে থাকে, তাকে বলে ‘প্রোষিতভর্তৃকা’।
১৭. নিচের কোনটি বাগ্ধারা?
ক. চৈত্রসংক্রান্তি খ. পৌষসংক্রান্তি গ. শিবসংক্রান্তি ঘ. শিরে সংক্রান্তি উ. ঘ
ব্যাখ্যা: বিশেষ অর্থ বহন করে বলে ‘শিরে সংক্রান্তি’ একটি বাগ্ধারা; যার অর্থ আসন্ন বিপদ। বাকিগুলো বাগ্ধারা নয়। অন্যদিকে চৈত্র মাসের শেষ দিনকে চৈত্রসংক্রান্তি এবং পৌষ মাসের শেষ দিনে পিঠা খাওয়ার উৎসবকে পৌষসংক্রান্তি বলে।
১৮. ‘ইত্যাকার’ শব্দটির সন্ধিবিচ্ছেদ—
ক. ইতি+আকার খ. ইত্যা+আকার গ. ইতি+আকার ঘ. ইত+আকার উ. ক
ব্যাখ্যা: ই–কার কিংবা ঈ–কারের পর ই ও ঈ ভিন্ন অন্য স্বর থাকলে ই বা ঈ ‘য’ হয়। য–ফলা লেখার সময় পূর্ববর্তী ব্যঞ্জনের সঙ্গে লেখা হয়। যেমন: ইতি+আকার=ইত্যাকার। শব্দটির অর্থ: এই প্রকার, এইরূপ।
১৯. নিচের কোন বানানটি শুদ্ধ?
ক. পসারিণী খ. পসারিনি গ. পসারিনী ঘ. পসারীনী উ. ক
ব্যাখ্যা: ‘পসারিণী’ সঠিক বানানযুক্ত শব্দ। শব্দটির অর্থ: নারী পণ্যবিক্রেতা। পসারিণীর পুংলিঙ্গ হলো পসারি।
২০. ‘মাতৃভাষায় যার ভক্তি নাই, সে মানুষ নহে’কার উক্তি?
ক. মীর মশাররফ হোসেন খ. মাইকেল মধুসূদন দত্ত
গ. রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ঘ. কাজী নজরুল ইসলাম উ. ক
ব্যাখ্যা: ‘মাতৃভাষায় যার ভক্তি নাই, সে মানুষ নহে’ উক্তিটি মীর মশাররফ হোসেনের ‘আমাদের শিক্ষা’ প্রবন্ধ থেকে উদ্ধৃত। প্রসঙ্গত, মাতৃভাষা নিয়ে মাইকেল মধুসূদনের বিখ্যাত কবিতা ‘বঙ্গভাষা’। ‘বঙ্গভাষা’ কবিতার প্রথম লাইনটি হলো: ‘হে বঙ্গ, ভাণ্ডারে তব বিবিধ রতন’।

বিজ্ঞাপন
default-image

২১. Who is the author of ‘Istanbul’?
ক. Orhan Pamuk খ. Elif Shafak গ. Nazim Hikmet ঘ. Samiha Ayverdi উ. খ
ব্যাখ্যা: ‘Istanbul’ উপন্যাসটি লিখেছেন তুরস্কের নোবেলজয়ী লেখক ওরহান পামুক। তবে তুর্কি লেখিকা Elif Shafak–এর ‘The Bastard of Istanbul’ নামের একটি বই রয়েছে। এ ছাড়া নাজিম হিকমত একজন তুর্কি কবি, নাট্যকার ও ঔপন্যাসিক। এবং সামিহা আইভেদি একজন তুর্কি লেখিকা।
২২. Which one of the following is not the synonym of ‘Corruption’?
ক. Bribery খ. Extortion গ. Nepotism ঘ. Despotism উ. ঘ
ব্যাখ্যা: Corruption অর্থ দুর্নীতি, নৈতিক অধঃপতন, অবক্ষয়। শব্দটির সমার্থক শব্দ bribery—ঘুষ দেওয়া বা নেওয়া; extortion—বল প্রয়োগ বা ভীতি প্রদর্শনের মাধ্যমে আদায়; nepotism—স্বজনপ্রীতি, স্বজনপোষণ। কিন্তু Despotism শব্দটি corruption–এর সমার্থক নয়। Despotism অর্থ স্বৈরতন্ত্র, স্বেচ্ছাতন্ত্র।
২৩. ‘A place for keeping bees’ is—
ক. Apiary খ. Nest গ. Den ঘ. Aerie উ. ক
ব্যাখ্যা:A place for keeping bees—Apiary; A place where birds lay eggs—Nest; A dwelling place for wild beast—Den & A large nest of an eagle or other bird of prey that builds in a high place—Aerie.
২৪. Which word is correct?
ক. Lieutenant খ. Leiutenant গ. Lieutanant ঘ. Leiutanent উ. ক
ব্যাখ্যা: অপশনগুলোর মধ্যে সঠিক বানানযুক্ত শব্দ Lieutenant। শব্দটি দ্বারা সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন মর্যাদার নিচের কমিশন্ড অফিসারকে বোঝানো হয়।
২৫. Verb of the word ‘Simplification’ is—
ক. Simply খ. Simple গ. Simplify ঘ. Similar উ. গ
ব্যাখ্যা: Simplification শব্দটি noun। এর অর্থ সরলীকরণ। শব্দটির verb form হলো simplify—সরল করা, সহজবোধ্য করা। এ ছাড়া এর adjective এবং adverb form হলো যথাক্রমে simple (সরল, সাধারণ); simply (সহজভাবে, সাদাসিধেভাবে)। অন্যদিকে similar (adj.) শব্দটির অর্থ অনুরূপ, সদৃশ।

*চাকরির বিভিন্ন পরামর্শের জন্য মাসিক ম্যাগাজিন ‘চলতি ঘটনা’ পড়ুন।

পরামর্শ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন