default-image

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ইতালি সরকার আবার স্কুল বন্ধ করতে যাচ্ছে। আগামী সোমবার থেকে স্কুল, দোকানপাট ও রেস্তোরাঁ বন্ধ থাকার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী মারিও দ্রাঘি করোনার নতুন ধরন (স্ট্রেইন) সম্পর্কে সতর্ক করার পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, রোম ও মিলানসহ দেশটির অর্ধেকের বেশি অঞ্চলে স্কুল, দোকানপাট ও রেস্তোরাঁ বন্ধ থাকবে। কর্মক্ষেত্রে যাওয়া, স্বাস্থ্য-সংক্রান্ত ও জরুরি প্রয়োজন ছাড়া এসব অঞ্চলের বাসিন্দাদের ঘরে থাকতে বলা হয়েছে। খ্রিষ্টানদের অন্যতম উৎসব ইস্টার সানডের ছুটিতে করোনার সংক্রমণ রোধে আগামী ৩ থেকে ৫ এপ্রিল পর্যন্ত দেশটিতে সবকিছুই বন্ধ থাকবে বলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে জানানো হয়েছে। এ বিষয়ে ইতালির প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে জানানো হয়েছে, ইস্টার সানডের ছুটিতে করোনার সংক্রমণের উচ্চঝুঁকির কারণে পুরো দেশ ‘রেড জোনে’ থাকবে।

বিজ্ঞাপন
default-image

মারিও দ্রাঘি বলেন, ‘আমি জানি, বিধিনিষেধের কারণে আপনার সন্তানদের পড়াশোনা, অর্থনীতি ও প্রত্যেকের মানসিক স্বাস্থ্যের ওপর প্রভাব পড়বে। কিন্তু পরিস্থিতির আরও অবনতি এড়ানোর জন্য এগুলো প্রয়োজন। কারণ, ইতালিতে সংক্রমণ বাড়ছে। ছয় সপ্তাহ ধরেই সংক্রমণ বেড়ে চলেছে। এই সময়ের মধ্যে কোনো কোনো দিন সংক্রমণ ২৫ হাজারও পেরিয়েছে।’

করোনা সংক্রমণের পর ইতালিতে ১ লাখের বেশি মানুষ মারা গেছেন। ইউরোপে যুক্তরাজ্যের পর এ মৃতের এ সংখ্যা দ্বিতীয়। ইতালিতে এখন পর্যন্ত ৩২ লাখ মানুষ করোনা শনাক্ত হয়েছেন। ইউরোপের অপর দেশ পোল্যান্ডে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যাও বাড়ছে। গতকাল শুক্রবার দেশটিতে ১৯ হাজার মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। গত বছরের নভেম্বরের পর আক্রান্তের সংখ্যা দেশটিতে সর্বোচ্চ। জার্মানিতে শিশুদের মধ্যেও করোনার নতুন ধরনের (স্ট্রেইন) সংক্রমণ বাড়ছে। ফ্রান্সেও তিন মাসের মধ্যে আক্রান্তের সংখ্যা সর্বোচ্চ। আক্রান্তের সংখ্যা দিনে ৪ হাজার অতিক্রম করেছে দেশটিতে।

শিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন