৩৪. পরাগায়নের জন্য কিসের গুরুত্ব অনেক বেশি?

ক. পুষ্পমঞ্জরী খ. গর্ভকেশর

গ. গর্ভাশয় ঘ. গর্ভদণ্ড

৩৫. স্বপরাগায়নের ফলে—

i. পরাগরেণুর অপচয় কম হয়

ii. পরাগায়ন নিশ্চিত হয়

iii. বাহকের ওপর নির্ভর করতে হয় না

নিচের কোনটি সঠিক?

ক. i ও ii খ. i ও iii

গ. ii ও iii ঘ. i, ii ও iii

৩৬. পরপরাগায়নের ফলে—

i. নতুন চরিত্রের সৃষ্টি হয়

ii. বীজের অঙ্কুরোদগমের হার বৃদ্ধি পায়

iii. নতুন প্রজাতির সৃষ্টি হয়

নিচের কোনটি সঠিক?

ক. i ও ii খ. i ও iii

গ. ii ও iii ঘ. i, ii ও iii

৩৭. ভ্রূণথলির কেন্দ্রের দিকের কোষটিকে কী বলে?

ক. এপিক্যাল কোষ

খ. ভ্রূণমূল

গ. ভ্রূণ

ঘ. ভ্রূণদণ্ড

৩৮. এপিক্যাল কোষ ধীরে ধীরে কিসে পরিণত হয়?

ক. ভ্রূণে খ. দণ্ডে

গ. ভ্রূণমূলে ঘ. গর্ভাশয়ে

৩৯. একটি সপুষ্পক উদ্ভিদের জীবনচক্রের চলতে থাকে—

i. স্পোরোফাইট

ii. গ্যামেটোফাইট

iii. স্পোর

নিচের কোনটি সঠিক?

ক. i ও ii খ. i ও iii

গ. ii ও iii ঘ. i, ii ও iii

৪০. লাউ, কুমড়া, পটোল ইত্যাদি প্রকৃতপক্ষে কী?

ক. সবজি খ. ফুল

গ. ফল ঘ. বীজ

সঠিক উত্তর

অধ্যায় ১১: ৩১.গ ৩২.ক ৩৩.খ ৩৪.ক ৩৫.ঘ ৩৬.ঘ ৩৭.ক ৩৮.ক ৩৯.ক ৪০.গ

মোহাম্মদ আক্তার উজ জামান, প্রভাষক, রূপনগর সরকারি মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ঢাকা

এই অধ্যায়ের প্রকাশিত পূর্বের বহুনির্বাচনি প্রশ্ন | পরবর্তী বহুনির্বাচনি প্রশ্ন

পড়াশোনা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন