default-image

অধ্যায় ১

শূন্যস্থান পূরণ

প্রশ্ন: মাতৃউদ্ভিদ থেকে বিভিন্ন স্থানে বীজের ছড়িয়ে পড়াই হলো বীজের ।

উত্তর: বিস্তরণ

প্রশ্ন: সবুজ উদ্ভিদ থেকেই প্রতিটি খাদ্য

শৃঙ্খলের ।

উত্তর: শুরু

প্রশ্ন: উদ্ভিদ সূর্যের আলো, পানি এবং বায়ু থেকে ব্যবহার করে নিজের খাদ্য নিজেই তৈরি করে।

উত্তর: কার্বন ডাই-অক্সাইড

প্রশ্ন: পরিবেশে উদ্ভিদ ও প্রাণী একে অপরের ওপর ।

উত্তর: নির্ভরশীল

প্রশ্ন: উদ্ভিদের ত্যাগ করা প্রাণী শ্বাস গ্রহণের সময় ব্যবহার করে।

উত্তর: অক্সিজেন

বিজ্ঞাপন

প্রশ্ন: উদ্ভিদ তার খাদ্য তৈরি, বৃদ্ধি, পরাগায়ন ও বীজের বিস্তরণের জন্য ওপর নির্ভরশীল।

উত্তর: প্রাণীর

প্রশ্ন: বাস্তুসংস্থানে উদ্ভিদ থেকে প্রাণীতে শক্তি প্রবাহের ধারাবাহিক প্রক্রিয়া হলো ।

উত্তর: খাদ্যশৃঙ্খল

প্রশ্ন: বাস্তুসংস্থানের সব উদ্ভিদ ও প্রাণী কোনো না কোনো খাদ্য অন্তর্ভুক্ত।

উত্তর: শৃঙ্খলের

প্রশ্ন: কোনো স্থানের সব জীব ও জড় এবং তাদের মধ্যকার পারস্পরিক ক্রিয়াই হলো ওই স্থানের ।

উত্তর: বাস্তুসংস্থান

সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন

প্রশ্ন: খাদ্যজাল ও খাদ্যশৃঙ্খলের মধ্যে পার্থক্য কী?

উত্তর: একাধিক খাদ্যশৃঙ্খল একত্র হয়ে খাদ্যজাল তৈরি করে। বাস্তুসংস্থানে উদ্ভিদ থেকে প্রাণীতে শক্তি প্রবাহের ধারাবাহিক প্রক্রিয়াকেই খাদ্যশৃঙ্খল বলে।

প্রশ্ন: উদ্ভিদ কীভাবে প্রাণীর ওপর নির্ভরশীল?

উত্তর: উদ্ভিদ খাদ্য তৈরি, বৃদ্ধি, পরাগায়ন ও বীজের বিস্তরণের জন্য প্রাণীর ওপর নির্ভরশীল। উদ্ভিদ খাদ্য তৈরির জন্য প্রাণীর ত্যাগ করা কার্বন-ডাই-অক্সাইড ব্যবহার করে থাকে।

প্রশ্ন: মানুষ নির্ভর করে এমন তিনটি জড়বস্তুর উদাহরণ দাও।

উত্তর: মানুষ নির্ভর করে এমন তিনটি জড়বস্তু হলো— মাটি, পানি, বাতাস।

প্রশ্ন: পরাগায়ন কী?

উত্তর: ফুলের পরাগধানী থেকে পরাগরেণু বায়ু, মৌমাছি, পাখি ইত্যাদির সাহায্যে ফুলের গর্ভমুণ্ডে স্থানান্তরের প্রক্রিয়াকে পরাগায়ন বলে।

বিজ্ঞাপন

প্রশ্ন: বাস্তুসংস্থান কী?

উত্তর: কোনো স্থানের সব জীব ও জড় এবং তাদের মধ্যকার পারস্পরিক ক্রিয়াই হলো ওই স্থানের বাস্তুসংস্থান।

প্রশ্ন: বীজের বিস্তরণ বলতে কী বোঝ?

উত্তর: মাতৃউদ্ভিদ থেকে বিভিন্ন স্থানে বীজের ছড়িয়ে পড়াকেই বীজের বিস্তরণ বলে।

প্রশ্ন: উদ্ভিদের বীজ কীভাবে সৃষ্টি হয়?

উত্তর: উদ্ভিদের পরাগায়নের ফলে বীজ
সৃষ্টি হয়।

বর্ণনামূলক প্রশ্ন

প্রশ্ন: নিচের শব্দগুলো দিয়ে গঠিত খাদ্যশৃঙ্খলের সঠিক ক্রম ব্যাখ্যা করো।

ইগল, সূর্য, ঘাস, পোকামাকড়, সাপ, ব্যাঙ।

উত্তর: উল্লিখিত শব্দগুলো দিয়ে গঠিত খাদ্যশৃঙ্খলের সঠিক ক্রম নিচে দেওয়া হলো:

সূর্য-ঘাস-পোকামাকড়-ব্যাঙ-সাপ-ইগল

ব্যাখ্যা: সবুজ ঘাস সূর্যের আলো ব্যবহার করে নিজের খাদ্য তৈরি করে। পোকামাকড় ঘাস খেয়ে বেঁচে থাকে। ব্যাঙ পোকামাকড়কে খায়। একইভাবে ব্যাঙকে খায় সাপ এবং সাপকে খায় ইগল। এভাবে খাদ্যশৃঙ্খলের মাধ্যমে উদ্ভিদ থেকে প্রাণীতে শক্তি প্রবাহিত হয় ।

বাকি অংশ ছাপা হবে আগামীকাল

শিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন