default-image

ভাষা

২৮. চলিত রীতির বৈশিষ্ট্য কোনটি?

ক. পদবিন্যাস সুনির্দিষ্ট

খ. ব্যাকরণের অনুসারী

গ. ভাষারীতি অপরিবর্তনীয়

ঘ. ভাষারীতি সরল ও সাবলীল

২৯. নাটকের সংলাপের উপযোগী ভাষা কোনটি?

ক. সাধু খ. আঞ্চলিক

গ. বিদেশি ঘ. চলিত

৩০. কোন ভাষারীতিতে সর্বনাম ও ক্রিয়াপদের পূর্ণরূপ ব্যবহূত হয়?

ক. সাধু রীতি খ. চলিত রীতি

গ. প্রমিত রীতি ঘ. আঞ্চলিক রীতি

৩১. ফোর্ট উইলিয়াম কলেজ প্রতিষ্ঠিত হয়—

ক. ১৮০০ সালে খ. ১৮০২ সালে

গ. ১৮০৫ সালে ঘ. ১৮০৮ সালে

বিজ্ঞাপন

ব্যাকরণ

১. ব্যাকরণের কাজ কী?

ক. ভালো বক্তা তৈরি করা

খ. নতুন ভাষা তৈরি করা

গ. দ্রুত লেখা ও পড়া শেখানো

ঘ. ভাষার অভ্যন্তরীণ শৃঙ্খলা রক্ষা করা.

২. ধ্বনিতত্ত্বের আলোচ্য বিষয় কী কী?

ক. কারক, সমাস, ণ-ত্ব ও ষ-ত্ব বিধান

খ. বাক্য গঠন ও উচ্চারণ

গ. সন্ধি, উপসর্গ ও প্রত্যয়

ঘ. বর্ণ ও বর্ণের উচ্চারণ

৩. ভাষার মৌলিক উপাদান কয়টি?

ক. দুটি খ. তিনটি

গ. চারটি ঘ. পাঁচটি

৪. বাংলা ব্যাকরণের প্রধান আলোচ্য বিষয় কয়টি?

ক. ২টি খ. ৩টি

গ. ৪টি ঘ. ৫টি

৫. ‘ব্যাকরণ’ শব্দের ব্যুৎপত্তিগত অর্থ কী?

ক. সাধারণ বিশ্লেষণ

খ. বিশেষভাবে বিশ্লেষণ

গ. সাধারণ সংশ্লেষণ

ঘ. বিশেষভাবে সংযোজন

৬. রূপতত্ত্বের অপর নাম কী?

ক. বাক্যতত্ত্ব খ. শব্দতত্ত্ব

গ. ধ্বনিতত্ত্ব ঘ. পদক্রম

বিজ্ঞাপন

৭. কারক ও সমাস ব্যাকরণের কোন অংশে আলোচিত হয়?

ক. ভাষাতত্ত্বে খ. বাক্যতত্ত্বে

গ. ধ্বনিতত্ত্বে ঘ. রূপতত্ত্বে

৮. ব্যাকরণে ধ্বনি বা বর্ণের আলোচনাকে কী বলে?

ক. ধ্বন্যাগম খ. ধ্বনিতত্ত্ব

গ. ধ্বনিমূল ঘ. ধ্বনিতরঙ্গ

৯. ব্যাকরণ পাঠের প্রয়োজনীয়তা কী?

ক. ব্যাকরণ পাঠ মানুষকে রুচিশীল করে

খ. ব্যাকরণ পাঠে ভাষার গতি পরিবর্তন করা যায়

গ. ব্যাকরণ পাঠে ভাষার কাল নির্ণয় করা যায়

ঘ. ব্যাকরণ পাঠ করে ভাষার শৃঙ্খলা সম্পর্কে জানা যায়

১০. ভাষার ‘সংবিধান’ বলা হয় কাকে?

ক. ব্যাকরণ খ. শব্দ

গ. বর্ণমালা ঘ. ধ্বনি

সঠিক উত্তর

ভাষা: ২৮. ঘ ২৯. ঘ ৩০. ক ৩১. ক

ব্যাকরণ: ১. ঘ ২. ঘ ৩. গ ৪. গ ৫. খ ৬. খ ৭. ঘ ৮. খ ৯. ঘ ১০. ক

শিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন