default-image

৩.

বাংলাদেশের দক্ষিণে রয়েছে প্রকৃতির অপার সম্ভার সুন্দরবন। সমুদ্রের কোল ঘেঁষে গড়ে উঠেছে এই বিশাল বন। এখানে রয়েছে যেমন প্রচুর গাছপালা, কেওড়া ও সুন্দরীগাছের বন, তেমনি রয়েছে নানা প্রাণী, জীবজন্তু। বাংলাদেশের নামের সঙ্গে জড়িয়ে আছে রয়েল বেঙ্গল টাইগার বা রাজকীয় বাঘের নাম। এই বাঘ থাকে সুন্দরবনে। এ বাঘ দেখতে যেমন সুন্দর, তেমনি আবার ভয়ংকর। একসময় সুন্দরবনে ছিল চিতাবাঘ ও ওলবাঘ। কিন্তু এখন আর এসব বাঘ দেখা যায় না। সুন্দরবনের রয়েল বেঙ্গল টাইগার বাংলাদেশের অমূল্য সম্পদ। এ বাঘকে বিলুপ্তির হাত থেকে আমাদের বাঁচাতে হবে।

উত্তর

ক. কে গোলপাতার বনে ঘুরে বেড়ায়?

খ. সমুদ্রের কোল ঘেঁষে কী গড়ে উঠেছে?

গ. সুন্দরবন বাংলাদেশের কোথায় অবস্থিত?

ঘ. রয়েল বেঙ্গল টাইগারকে বিলুপ্তির হাত থেকে আমরা কীভাবে বাঁচাতে পারি?

ঙ. সুন্দরবনে এখন আর ওলবাঘ ও চিতাবাঘ দেখা যায় না কেন?

৪.

একদিন এক টুনটুনির ইচ্ছা হলো পৃথিবীটা ঘুরে ঘুরে দেখার। এ জন্য সে তার মায়ের কাছে গেল অনুমতি নিতে। মা টুনটুনির ইচ্ছার কথা শুনে কিছুতেই অনুমতি দিতে চাইল না। কিন্তু টুনটুনিও নাছোড়বান্দা। সে পৃথিবীটা ঘুরে দেখবেই। তাই সে বারবার মায়ের কাছে আবদার করতে লাগল। টুনটুনির আবদার তার মা ফেলতেও পারল না, আবার টুনটুনিকে একা ছেড়ে দিতেও পারল না। তাই মা টুনটুনিকে সঙ্গে নিয়ে বের হলো পৃথিবী দেখতে। গ্রামের পরে গ্রাম উড়ে উড়ে টুনটুনি মায়ের সঙ্গে পৃথিবী দেখতে লাগল।

উত্তর: ক. একদিন টুনটুনির কী ইচ্ছা হলো?

খ. কে নাছোড়বান্দা?

গ. টুনটুনি কোথায় অনুমতি নিতে গেল?

ঘ. মা টুনটুনিকে সঙ্গে নিয়ে বের হলো কেন?

ঙ. টুনটুনি কীভাবে পৃথিবীটা দেখতে লাগল?

৫.

একটি নদী, তার দুই তীরে দুজন মানুষ বাস করে। একজন ভালোবাসে তার নদীর বালুচর, শরৎকালে চকাচকিরা যেখানে ঘর বাঁধে। এর তীরে তীরে ফুটে থাকে কাশফুল। শীতের সময় হাঁসেরা এসে ভিড় করে, কচ্ছপেরা রোদ পোহায়। সন্ধ্যায় জেলের ডিঙি এসে ভেড়ে। অন্যজন ভালোবাসে বন, যার আছে ঘন ছায়া। সেখান থেকে একটা রাস্তা এসে মিশেছে নদীতে। নদীর ঘাটে বধূরা আসে, ছেলেরা জলে ভেলা ভাসায়। একটি নদী দুই তীরের মানুষকে কী সুন্দর মিলিয়ে দিয়েছে।

উত্তর: ক. নদীর তীরে তীরে কী ফুটে থাকে?

খ. শীতের সময় হাঁসেরা এসে ভিড় করে কেন?

গ. চকাচকিরা কখন ঘর বাঁধে?

ঘ. কোথায় কচ্ছপেরা রোদ পোহায়?

ঙ. কীভাবে একটি নদী দুই তীরের মানুষকে মিলিয়ে দিয়েছে?

বিজ্ঞাপন
শিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন