বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বুয়েটে এবার মোট আসন ১ হাজার ২১৫ টি। প্রকৌশল বিভাগগুলো এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের জন্য মোট আসন ১ হাজার ১৫৫টি (৩টি সংরক্ষিত আসনসহ) আর স্থাপত্য বিভাগের জন্য আসন ৬০টি (১টি সংরক্ষিত আসনসহ)।

বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষার লিখিত পর্ব হয় দুটি গ্রুপে। ক গ্রুপে ছিল প্রকৌশল বিভাগগুলো এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগ। খ গ্রুপে প্রকৌশল বিভাগগুলো এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের পাশাপাশি স্থাপত্য বিভাগ। প্রাক-নির্বাচনী পর্বে ক ও খ দুই গ্রুপের জন্যই গণিত, পদার্থবিজ্ঞান ও রসায়ন বিষয়ের ওপর ১০০ নম্বরের বহুনির্বাচনী পরীক্ষা হয়। লিখিত পর্বে ক গ্রুপের জন্য ৪০০ ও খ গ্রুপের জন্য ৬৫০ নম্বরের পরীক্ষা হয়। এ ক্ষেত্রে ক গ্রুপের পরীক্ষা হয় গণিত, পদার্থবিজ্ঞান ও রসায়ন বিষয়ের ওপর আর খ গ্রুপে গণিত, পদার্থবিজ্ঞান ও রসায়নের পাশাপাশি মুক্তহস্ত অঙ্কন এবং দৃষ্টিগত ও স্থানিক ধীশক্তি বিষয়ের ওপর পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেওয়া ৫ হাজার ৯৪৪ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ১ হাজার ৯৮০ জন ভর্তির জন্য প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত ও অপেক্ষমাণ তালিকায় স্থান পেয়েছেন।

বুয়েটে এবার মোট আসন ১ হাজার ২১৫ টি। প্রকৌশল বিভাগগুলো এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের জন্য মোট আসন ১ হাজার ১৫৫টি (৩টি সংরক্ষিত আসনসহ) আর স্থাপত্য বিভাগের জন্য আসন ৬০টি (১টি সংরক্ষিত আসনসহ)।

প্রকাশিত ফলাফলে স্থাপত্য বিভাগে ভর্তির জন্য প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত হয়েছেন ৬০ জন আর অপেক্ষমাণ তালিকায় আছেন ১২০ জন। প্রকৌশল বিভাগগুলো এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগে ভর্তির জন্য ১ হাজার ১৫৫ জন শিক্ষার্থী প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত হয়েছেন, অপেক্ষমাণ তালিকায় আছেন ৬৪৫ জন।

বুয়েটের জনসংযোগ দপ্তরের সহকারী পরিচালক (তথ্য) মো. শফিউর রহমান আজ শুক্রবার সকালে প্রথম আলোকে জানান, নির্বাচিত ও অপেক্ষমাণ তালিকায় থাকা শিক্ষার্থীদের ভর্তির তারিখগুলো শিগগির বুয়েটের ওয়েবসাইটে জানানো হবে।

বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষার এ ফলাফল দেখা যাবে এই লিংকে

শিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন