বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। দেশে দক্ষ লোকের অভাবের কথা জানিয়ে তিনি বলেন, তাঁর নিজের কারখানাতেই বিগত ৩৫ বছর ভারতের একজন কাজ করেছেন। এ ক্ষেত্রে ভূমি দেশে দক্ষ লোক তৈরির কাজ করার চেষ্টা করবে। ডিজিটাল বাংলাদেশের ধারণার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখেই ভূমি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।
বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের পর আরেকটি স্লোগান ঠিক করা হয়েছে, সেটি হলো স্মার্ট বাংলাদেশ। সুতরাং ডিজিটাল বাংলাদেশ করার কাজ শেষে স্মার্ট বাংলাদেশে যাওয়া হচ্ছে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ডিজিটাল ব্যবস্থার মাধ্যমে পড়াশোনা হলে ঢাকায় আর পড়াশোনার জন্য কেউ আসবে না। এ সময় মানসম্মত শিক্ষার ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

নতুন এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যানের দায়িত্বে আছেন দেশের শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ী শেলটেকের চেয়ারম্যান কুতুবউদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, তাঁরা শিক্ষার সঙ্গে ইন্ডাস্ট্রির সংযোগ স্থাপন করতে চান। ভূমির উল্লেখযোগ্য দিক হলো ঘরে বসেই অল্প খরচে জ্ঞান অর্জন করা যাবে। একই সঙ্গে চেষ্টা থাকবে, যাঁরা এখানে ভালো করবেন, তাঁদের বিভিন্ন ইন্ডাস্ট্রিতে কাজের ব্যবস্থা করা।

প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আসিফ আশরাফ শিল্পকারখানায় দক্ষতাভিত্তিক জনবলের অভাবের চিত্র তুলে ধরেন। তিনি বলেন, সেই দক্ষতা পূরণ করাই হবে ভূমির লক্ষ্য, যা চাকরির বাজারে চাহিদা পূরণ করবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জানানো হয়, এখন ভূমিতে তিনটি প্রধান কোর্স রয়েছে। এগুলো হলো এক্সিকিউটিভ, স্কিল-আপ ও মাস্টারক্লাস। এক্সিকিউটিভ কোর্সের প্রধান লক্ষ্য হলো, অল্প সময়ের মধ্যে বিভিন্ন সংস্থায় কর্মরত নির্বাহীদের প্রয়োজনীয় দক্ষতা দেওয়া।

এই কোর্সের মেয়াদ হবে ১০ থেকে ১৬ ঘণ্টা। এ বিষয়ে শিগগির আরও কয়েকটি কোর্স চালু করা হবে। স্কিল-আপ কোর্সের মূল লক্ষ্য হলো এমন একটি দক্ষতা শেখানো, যা শিক্ষার্থীদের চাকরিজীবন শুরু করতে সহায়তা করে। এই কোর্সগুলো মূলত বর্তমান শিক্ষার্থী ও নতুন স্নাতকদের জন্য। এর মেয়াদ হবে তিন থেকে ছয় মাস। আর মাস্টারক্লাস কোর্স হবে এমন একধরনের প্রশিক্ষণ, যা শিক্ষার্থীরা এক দিন বা একটি লেকচারের মাধ্যমে শেষ করতে পারেন। এতে প্রযুক্তিগত বা ব্যবসায়িক উদ্ভাবনের ওপর গুরুত্বারোপ করা হবে। তিন থেকে ছয় ঘণ্টার এই কোর্স সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন ভূমির জ্যেষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যান ও সংসদ সদস্য মো. শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, ভাইস চেয়ারম্যান ও বিজিএমইএর সভাপতি ফারুক হাসান, বাংলাদেশ এমপ্লয়ার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি কামরান টি রহমান, ভূমির পরিচালনার সঙ্গে যুক্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউটের শিক্ষক মেলিতা মেহজাবীন প্রমুখ।

শিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন