বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে জানতে গেলে আজ বুধবার মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (মাধ্যমিক) নিজ কার্যালয়ে প্রথম আলোকে বলেন, সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ভর্তির ক্ষেত্রে প্রথম শ্রেণি ছাড়া আর কোনো শ্রেণিতে বয়স কোনো বাধা হবে না। এ সময় তিনি এই প্রতিবেদকের সামনেই মুঠোফোনে জামালপুর জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) হালিমা খাতুনের সঙ্গে কথা বলেন। তখন ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক জানান, উদ্ভূত পরিস্থিতির সমাধান হয়েছে।

মাউশির একজন কর্মকর্তা প্রথম আলোকে বলেন, এবার ভর্তিসংক্রান্ত সভার পর শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রথমে যে নীতিমালা জারি করা হয়েছিল, সেখানে গতবারের নিয়মগুলো ছিল। কিন্তু কিছুক্ষণ পরই সেটি ওয়েবসাইট থেকে নামিয়ে ফেলা হয়। এরপর এ বিষয়ে স্পষ্টকরণও দেওয়া হয়। কিন্তু কোনো কোনো প্রধান শিক্ষক সেটি খেয়াল করেননি। মূলত কোথাও কোথাও এ কারণেই ভুল–বোঝাবুঝি হয়ে থাকতে পারে। তবে এটি একেবারেই পরিষ্কার, প্রথম শ্রেণি ছাড়া আর কোনো শ্রেণিতে বয়সের কারণে কাউকে ভর্তিতে আটকানো যাবে না। এটি করলে তা হবে অন্যায় ও অপরাধ। এটি করার কোনো সুযোগ নেই।

মাউশি সূত্রে জানা গেছে, গত বছর ভর্তির সময় বয়স নিয়ে জটিলতা দেখা দিলে আদালতের নির্দেশে তা সংশোধন করা হয়েছিল।

উল্লেখ্য, এবার সারা দেশের অধিকাংশ সরকারি ও বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয়ভাবে ডিজিটাল লটারির মাধ্যমে শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য শিক্ষার্থী নির্বাচন করা হয়।

শিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন