সরকারি বিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য আবেদন নেওয়া শুরু হবে ১৬ নভেম্বর থেকে। চলবে ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত। কেন্দ্রীয় পর্যায়ে অনুষ্ঠিত হবে ডিজিটাল লটারি। আগামী ১০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে অনলাইন লটারি। শিক্ষার্থী ভর্তির ক্ষেত্রে লটারি ছাড়া অন্য কোনো পরীক্ষা নেওয়া যাবে না। ২৮ ডিসেম্বরের মধ্যে ভর্তির কাজ শেষ করতে হবে।

শুধু অনলাইনে (https://gsa.teletalk.com.bd) আবেদন করা যাবে। সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোর মধ্যে ঢাকা মহানগরীর সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোকে (ফিডার শাখাসহ) তিনটি গ্রুপে বিভক্ত করে ভর্তির কাজটি করা হবে। আবেদনের সময় একজন প্রার্থী একই গ্রুপে পছন্দক্রম দিয়ে সর্বোচ্চ ৫টি বিদ্যালয় দিতে পারবে।

অন্যদিকে সারা দেশে আবেদনকারী আবেদনের সময় প্রতিষ্ঠান নির্বাচনকালে থানাভিত্তিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তালিকা পাবে। সেখান থেকে সর্বোচ্চ ৫টি বিদ্যালয় পছন্দক্রম দিতে পারবে। দ্বিতীয় পালায় (ডাবল শিফট) চলা বিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে উভয় পালা পছন্দ করলে দুটি পছন্দ বলে গণ্য হবে।

বেসরকারি বিদ্যালয়

বিজ্ঞপ্তির তথ্যানুযায়ী, ঢাকা মহানগরীসহ সারা দেশের মহানগরী পর্যায়ের বিভাগীয় সদরের মেট্রোপলিটন এলাকা এবং জেলা সদরের সদর উপজেলার বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়েও শুধু অনলাইনে (https://gsa. teletalk.com.bd) আবেদন করা যাবে। সরকারি বিদ্যালয়ের মতো বেসরকারি বিদ্যালয়গুলোতে ১৬ নভেম্বর থেকে ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত আবেদন করা যাবে। তবে এগুলোতে ভর্তির জন্য শিক্ষার্থী বাছাইয়ে ডিজিটাল লটারি হবে আগামী ১৩ ডিসেম্বর।

Govt-school1.pdf
Non-Govt-school.pdf