বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দীপু মনি বলেন, এবারের এইচএসসি পরীক্ষাই শেষ হবে ৩০ ডিসেম্বর। সে ক্ষেত্রে ১ ফেব্রুয়ারি আবার পরীক্ষা (এসএসসি) নেওয়া সম্ভব হবে না। তাদের (আগামী বছরের পরীক্ষার্থী) ক্লাস করার বিষয়ও রয়েছে। কাজেই তাদের আরেকটু সময় দিয়ে তারপর পরীক্ষা হবে। কবে কীভাবে কোন পাঠ্যসূচিতে হবে, এগুলো জানিয়ে দেওয়া হবে।
সাধারণত প্রতিবছর ফেব্রুয়ারির শুরুতে এসএসসি ও সমমান এবং এপ্রিলের শুরুতে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা হতো। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে পুরো শিক্ষাপঞ্জি এলোমেলো হয়ে গেছে।

default-image

৮ থেকে ২৫ নভেম্বর সব কোচিং সেন্টার বন্ধ

চলতি বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল ফেব্রুয়ারিতে। কিন্তু এখন আগামী ১৪ নভেম্বর এই পরীক্ষা শুরু হবে। তা-ও সব বিষয়ে পরীক্ষা হবে না। পুনর্বিন্যাস করা পাঠ্যসূচিতে গ্রুপভিত্তিক তিনটি নৈর্বাচনিক বিষয়ে হচ্ছে এ পরীক্ষা। আজকের সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এবার ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ড মিলিয়ে এ বছর মোট পরীক্ষার্থী ২২ লাখ ২৭ হাজার ১১৩ জন। গতবারের এবার প্রায় ১ লাখ ৮০ হাজার পরীক্ষার্থী বেড়েছে। এবার মোট ৩ হাজার ৬৭৯টি কেন্দ্রে হবে এই পরীক্ষা। পরীক্ষা শেষ হওয়ার ৩০ দিনের মধ্যে ফল প্রকাশ করা হবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, পরীক্ষার্থীদের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য এ বছর বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের পরীক্ষা ভিন্ন ভিন্ন সময়ে নেওয়া হবে। আর পরীক্ষা সুষ্ঠু, সুন্দর ও নকলমুক্ত পরিবেশে অনুষ্ঠানের জন্য আগামী ৮ থেকে ২৫ নভেম্বর পর্যন্ত সব কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে। এদিকে পূর্বঘোষণা অনুযায়ী, চলতি বছরের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা ২ ডিসেম্বর শুরু হয়ে ৩০ ডিসেম্বর শেষ হবে।

পরীক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন