default-image

অধ্যায় ২

নিপা ফুড কোম্পানি সম্প্রতি বাজারে নতুন শেয়ার ছেড়েছে। উজ্জ্বল খান আবেদন করলে লটারির মাধ্যমে ১০০টি শেয়ার পান। অন্যদিকে তৃষ্ণা লি. নতুন একটি কোমল পানীয় বাজারে আনার পরিকল্পনা করছে, যার জন্য বড় অঙ্কেও মূলধন প্রয়োজন। কোম্পানি শেয়ার বিক্রির মাধ্যমে মূলধন সংগ্রহের জন্য পূঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসির কাছে আবেদন করলে সংস্থাটি তা নাকচ করে দেয়। তা ছাড়া কোম্পানির যথেষ্ট পরিমাণ নগদ অর্থও নেই, যার মাধ্যমে এটি নতুন প্রকল্প শুরু করতে পারে।

প্রশ্ন

ক. আর্থিক বাজার কী?

খ. কোন ধরনের কোম্পানি বাণিজ্যিকপত্র বিক্রি করতে পারে? ব্যাখ্যা করো।

গ. মি. উজ্জ্বলের বিনিয়োগটি কোন বাজার সম্পর্কিত? বর্ণনা করো।

ঘ. তৃষ্ণা লি. বিকল্প কোন বাজার থেকে মূলধন সংগ্রহ করতে পারবে? যুক্তি দাও।

উত্তর

ক. যে বাজারে স্বল্পমেয়াদি ও দীর্ঘমেয়াদি আর্থিক সম্পদ কেনাবেচা করা হয়, তাকে আর্থিক বাজার বলে।

খ. বড় ও স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানগুলো বাণিজ্যিকপত্র বিক্রি করতে পারে। প্রতিষ্ঠানের স্বল্পমেয়াদি অর্থায়নের প্রয়োজন মিটানোর জন্যই এ ধরনের পত্র বিক্রি করা হয়। এটি মুদ্রাবাজারে ব্যবহৃত স্বল্পমেয়াদি ঋণের দলিল। এ পত্রের মেয়াদ ৯০ থেকে ২৭০ দিন পর্যন্ত হয়ে থাকে। সাধারণত বাণিজ্যিকপত্র লিখিত মূল্যের চেয়ে কমমূল্যে বিক্রি করা হয়।

গ. উদ্দীপকে মি. উজ্জ্বলের বিনিয়োগটি পুঁজি বা মূলধন বাজার সম্পর্কিত। মূলধন বাজারে মূলত দীর্ঘ মেয়াদের জন্য অর্থ ও আর্থিক সম্পদেও লেনদেন করা হয়। এ বাজারকে শেয়ারবাজারও বলা হয়ে থাকে। এ বাজারকে প্রাথমিক বাজার এবং মাধ্যমিক বাজার এই দুই ভাগে ভাগ করা যায়।

উদ্দীপকে নিপা ফুড কোম্পানি সম্প্রতি বাজারে নতুন শেয়ার ইস্যু করেছে। মি. উজ্জ্বল আবেদন করলে লটারির মাধ্যমে ১০০টি শেয়ার পান। কোম্পানি হিসেবে নিপা ফুড কোম্পানি তাদের নতুন শেয়ার বিক্রির প্রাথমিক প্রস্তাব অবশ্যই প্রাথমিক বাজারেই করেছে। কেননা নতুন কোম্পানিকে শেয়ার ইস্যু করতে হলে প্রাথমিক বাজারেই তা বিক্রি করতে হয়। আর প্রাথমিক বাজার

হলো মূলধন বাজারেরই অংশ। অর্থাৎ এখানে মি. উজ্জ্বল মূলধন বাজারে বিনিয়োগ করেছেন।

ঘ. উদ্দীপকে তৃষ্ণা লি. বিকল্প হিসেবে মুদ্রাবাজার থেকে মূলধন সংগ্রহ করতে পারবে। মুদ্রাবাজার হলো আর্থিক বাজারের সেই অংশ, যেখানে স্বল্পমেয়াদি আর্থিক সম্পদ কেনাবেচা করা হয়। সাধারণত ট্রেজারি বিল, বাণিজ্যিক কাগজ, ব্যাংকের স্বীকৃতিপত্র প্রভৃতি দলিল বিক্রির মাধ্যমে এ বাজার থেকে অর্থসংস্থান করা হয়। এ বাজারের দলিলগুলোর মেয়াদ এক বছরের কম হয়ে থাকে।

উদ্দীপকে তৃষ্ণা লি. বাজারে একটি নতুন পানীয় আনার পরিকল্পনা করছে। এ জন্য প্রতিষ্ঠানটির বড় অঙ্কের মূলধনের প্রয়োজন। এটি শেয়ার বিক্রির জন্য পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসির কাছে আবেদন করে। বিএসইসি তৃষ্ণা লিমিটেডের আবেদনটি বাতিল করে দেয়। তৃষ্ণা লি. মুদ্রাবাজার থেকে অর্থসংস্থান করতে পারে। প্রতিষ্ঠানটি বাণিজ্যিক কাগজ, হস্তান্তরযোগ্য আমানত সার্টিফিকেট, ব্যাংকের স্বীকৃতিপত্র প্রভৃতি দলিলের মাধ্যমে তহবিল সংগ্রহ করতে পারে।

এ ছাড়া বাণিজ্যিক ব্যাংক মুদ্রাবাজারের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ। তৃষ্ণা লি. এসব ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়েও মূলধন সংস্থান করতে পারে। অর্থাৎ মূলধন বাজারের পরিবর্তে তৃষ্ণা লি. মুদ্রাবাজার থেকে প্রয়োজনীয় অর্থ সংগ্রহ করতে পারে।

*লেখক: নির্মল ইন্দু সরকার, সাবেক প্রভাষক, সেন্ট গ্রেগরি হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজ, ঢাকা

বিজ্ঞাপন
পরীক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন