জানতে চাইলে দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের সচিব মো. জহির উদ্দিন প্রথম আলোকে বলেন, এ ঘটনার প্রেক্ষাপটে তাঁরা কুড়িগ্রামে গিয়েছিলেন। এরপর সেখানে স্থানীয় প্রশাসন ও আন্তশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির সঙ্গে আলোচনা করে চার পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত হয়। তিনি ভূরুঙ্গামারীতে প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনাটি স্বীকার করেছেন।

এ বিষয়ে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান এবং আন্তশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাবকমিটির সভাপতি তপন কুমার সরকার প্রথম আলো বলেন, প্রশ্নপত্রসংক্রান্ত একটি জটিলতা হয়েছে। এ বিষয়ে তিনি পরে বিস্তারিত জানাবেন।

এর আগে দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে গণিত, কৃষিশিক্ষা, পদার্থবিজ্ঞান ও রসায়ন বিষয়ের এসএসসি পরীক্ষা স্থগিত করার কথা জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গণিত (১০৯), পদার্থবিজ্ঞান (১৩৬), কৃষিশিক্ষা (১৩৪) ও রসায়ন (১৩৭) বিষয়ের পরীক্ষা অনিবার্য কারণে স্থগিত করা হলো। এই চার বিষয়ের পরীক্ষার তারিখ পরে জানানো হবে। আর গণিত, কৃষিশিক্ষা, পদার্থবিজ্ঞান ও রসায়ন বিষয় ছাড়া বাকি বিষয়ের পরীক্ষা রুটিন অনুযায়ী অনুষ্ঠিত হবে।

রুটিন অনুযায়ী গণিত পরীক্ষা বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর), পদার্থবিজ্ঞান (তত্ত্বীয়) শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর), কৃষিশিক্ষা রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) এবং রসায়ন (তত্ত্বীয়) সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) হওয়ার কথা।

এর আগে যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের বাংলা দ্বিতীয় পত্রের এমসিকিউ পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। চলমান এসএসসি পরীক্ষার প্রথম দিন ১৫ সেপ্টেম্বরে নড়াইল ও লোহাগড়ার দুটি পরীক্ষাকেন্দ্রে বাংলা প্রথম পত্রের এমসিকিউ প্রশ্নপত্রের জায়গায় বাংলা দ্বিতীয় পত্রের এমসিকিউ বিতরণ করা হয়েছিল। পরীক্ষা নিয়ে কোনো বিতর্ক এড়াতে বাংলা দ্বিতীয় পত্রের এমসিকিউ পরীক্ষা স্থগিত করা হয়।

স্থগিত হওয়া বাংলা (আবশ্যিক) দ্বিতীয় পত্রের এমসিকিউ পরীক্ষা ৩০ সেপ্টেম্বর নেওয়া হবে।

পরীক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন