default-image

ইএমকে সেন্টার ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃত্যকলা বিভাগ রাজধানীর ধানমন্ডিতে মাইডাস সেন্টারে যৌথভাবে বসন্ত উৎসব ১৪২৭ উদযাপন করেছে। গত রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) এ আয়োজন হয়।

১৯৭১ সালে বাংলাদেশের বিজয় অর্জনের চার মাসের মধ্যেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশকে স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। কিন্তু মার্কিন নাগরিকদের সঙ্গে বাংলাদেশের মুক্তিকামী জনতার ভ্রাতৃত্বের বন্ধন তৈরি হয় যুদ্ধ চলাকালেই। যার ধারাবাহিকতায় ১৯৭২ সালে মার্কিন সিনেটর এডওয়ার্ড এম কেনেডি সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশে আসেন। তিনি বিশ্বাস করতেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কূটনীতি সরকারের সঙ্গে সরকারের নয়, বরং মানুষের সঙ্গে মানুষের, বন্ধুর সঙ্গে বন্ধুর এবং নাগরিকের সঙ্গে নাগরিকের। সেই সম্পর্ক কোনো শক্তি কখনো নষ্ট করতে পারবে না। বন্ধুত্বের স্মারক হিসেবে তিনি ১৯৭২ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ভবন প্রাঙ্গণে একটি বটগাছ রোপণ করেন, যা আজও মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছে।

বিজ্ঞাপন
default-image

২০১৬ সাল থেকে প্রতিবছর দিনটিকে বসন্তের রঙে রঙে উদযাপন করতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে সিনেটর কেনেডির রোপণ করা সেই বটগাছটির সামনেই ইএমকে সেন্টার ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃত্যকলা বিভাগ যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে আসছে। তবে এ বছর কোভিড-১৯ মহামারির কারণে সামাজিক দূরত্ব ও সবার সুরক্ষা নিশ্চিত করতে ইএমকে সেন্টার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণের বদলে অনুষ্ঠানটি ধানমন্ডির মাইডাস সেন্টারে আয়োজন করে। অনুষ্ঠানটি যেন সবাই উপভোগ করতে পারেন, এ জন্য আয়োজন স্থল থেকে সরাসরি সম্প্রচার করা হয় ইএমকে সেন্টারের ফেসবুক পেজ ও ইউটিউব চ্যানেলে।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃত্যকলা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা স্বাগত বক্তব্য দেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান তাঁর উদ্বোধনী বক্তব্যে করোনাভাইরাসের মহামারির মধ্যেও এই উদযাপনের মাধ্যমে বাঙালি সংস্কৃতিকে ধারণ করায় আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান।

default-image

অনুষ্ঠানের সাংস্কৃতিক অংশের শুরুতে বসন্ত ‘এল এল এল রে’ গানের সঙ্গে নৃত্য উপস্থাপন করেন নৃত্যকলা বিভাগের শিক্ষার্থীরা। এরপর সংগীতভিত্তিক সংগঠন সুরের ধারার পক্ষ থেকে সংগীত পরিবেশনা করা হয়। পাশাপাশি নৃত্যশিল্পীরাও বসন্তের গানের তালে তালে তাঁদের নৃত্য পরিবেশন করেন।

বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য বলেন, ইএমকে সেন্টার ঠিক সিনেটর কেনেডির রোপণ করা বটগাছটির মতো বন্ধুত্ব, সহনশীলতা ও প্রত্যাশার উদাহরণ।

ইএমকে সেন্টারের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক আসিফ উদ্দিন আহমদ সমাপনী বক্তব্যে ধন্যবাদ জানান। শেষভাগে বাংলাদেশি ব্যান্ড একতারা সংগীত পরিবেশন করে। বিজ্ঞপ্তি

বিজ্ঞাপন
উচ্চশিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন