বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজ সোমবার দুপুরে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মো. ফয়জুল করিমের সই করা সংবাদ বিজ্ঞাপ্তিতে এসব কথা বলা হয়েছে।

১৪ সেপ্টেম্বর শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের ভার্চ্যুয়াল বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় যে সিন্ডিকেট ও একাডেমিক কাউন্সিল সিদ্ধান্ত নিয়ে ২৭ সেপ্টেম্বরের পর যেকোনো দিন বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দিতে পারবে। বিশ্ববিদ্যালয় খোলার আগেই অর্থাৎ ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে শিক্ষার্থীদের করোনা প্রতিরোধী টিকার জন্য সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধন সম্পন্ন করা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। যাঁদের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) রয়েছে, তাঁদের সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধন করতে এবং যাঁদের নেই তাঁদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থার কথা বলা হয়েছে।

শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরুর লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত ভার্চ্যুয়াল বৈঠকের সিদ্ধান্তে জানানো হয়, যেসব শিক্ষার্থীর এনআইডি নেই, তাঁরা জন্মসনদ ব্যবহার করে নিজ নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিপরীতে শিক্ষার্থী হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) ওয়েবলিংকে প্রবেশ করে শিক্ষার্থী নিবন্ধন সম্পন্ন করবেন। শিক্ষার্থী নিবন্ধন সম্পন্ন করার পর সুরক্ষা অ্যাপে টিকার নিবন্ধন সম্পন্ন করবেন।

আর যাঁদের জন্মসনদও নেই, তাঁরা আগে জন্মসনদ সংগ্রহ করে তারপর শিক্ষার্থী নিবন্ধন সম্পন্ন করবেন। শিক্ষার্থী নিবন্ধনের পর সুরক্ষা অ্যাপে টিকার নিবন্ধন করে টিকা নিতে হবে। ২৭ সেপ্টেম্বরর মধ্যে বাধ্যতামূলকভাবে সবাইকে শিক্ষার্থী নিবন্ধন সম্পন্ন করে টিকার নিবন্ধন সম্পন্ন করতে হবে।

উচ্চশিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন