default-image

নতুন করে নিয়োগের সুপারিশ পেয়েও এমপিওভুক্তি নিয়ে জটিলতায় পড়া ৯৮ শিক্ষকের সমস্যা সমাধান করেছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। তাঁদের নতুন করে নিয়োগ সুপারিশ করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) এমপিওভুক্তির জটিলতার সমস্যা সমাধানে বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে এনটিআরসিএ।

গত মঙ্গলবার রাত থেকে প্রার্থীরা নতুন সুপারিশের এসএমএস (খুদে বার্তা) পাচ্ছেন।

শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় পাস করেও নিয়োগ না পাওয়া ১ হাজার ২৮৪ জন দুই বছর ধরে এমপিওভুক্ত হতে পারছিলেন না। সম্প্রতি এসব শিক্ষকের সমস্যা সমাধান করেছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। কিন্তু বিভিন্ন জটিলতায় সুপারিশ করা ৯৮ জন শিক্ষক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যোগ দিতে পারছিলেন না। এসব শিক্ষকের এমপিওভুক্তির জটিলতার সমাধান করেছে এনটিআরসিএ। তাঁদের নতুন করে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করা হয়েছে।

এনটিআরসিএর দ্বিতীয় নিয়োগ চক্রে সুপারিশ পেয়েও এমপিওভুক্ত হতে পারছিলেন না ১ হাজার ২৮৪ প্রার্থী। জটিলতার কারণে তারা এমপিওভুক্ত হতে পারেননি। এমপিও পদে সুপারিশ পাওয়া এসব শিক্ষকের জটিলতা নিরসনে তাঁদের নতুন পদে সুপারিশ করা হয়। তবে শূন্যপদে ভুল তথ্যের কারণে নতুন সুপারিশ পেয়েও ৯৮ জন প্রার্থীর এমপিওভুক্তি নিয়ে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়। ১৫ মার্চ পর্যন্ত ভুক্তভোগী প্রার্থীদের কাছ থেকে আবেদন নিয়েছে এনটিআরসিএ। ৯৮ জন প্রার্থীর আবেদন পাওয়ার পর তাঁদের নতুন করে সুপারিশ করা হচ্ছে। সুপারিশ পাওয়া প্রার্থীদের এসএসএম করে জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

এনটিআরসিএর নির্ধারিত ওয়েবসাইট (http://ngi.teletalk.com.bd/) থেকে সুপারিশপ্রাপ্ত প্রার্থীদের তালিকা দেখা যাবে। প্রতিষ্ঠানপ্রধানেরা তাঁদের ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে সুপারিশপ্রাপ্তদের তালিকা দেখতে পারবেন। প্রার্থীরা সুপারিশপত্র ডাউনলোড করে নিজ নিজ পদে যোগ দিতে পারবেন।

*বিজ্ঞপ্তি এখানে দেখুন

বিজ্ঞাপন
উচ্চশিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন