default-image

সম্ভাব্য দ্বিতীয় দফা বন্যার শুরুতেই জনসাধারণের অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে দুর্গত এলাকার সব স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর। আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত সেই স্কুল ও কলেজের তালিকা ই–মেইল করে অধিদপ্তরে পাঠাতে বলা হয়েছে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের। একই সঙ্গে স্থানীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটিকে সার্বিক সহযোগিতার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সব সরকারি–বেসরকারি স্কুল-কলেজের শিক্ষক ও কর্মচারীদের।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর থেকে আদেশ জারি করে এসব নির্দেশনা সব প্রতিষ্ঠানের প্রধান এবং মাঠপর্যায়ের শিক্ষা কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

মহাপরিচালক অধ্যাপক সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সম্ভাব্য বন্যার শুরুতেই দুর্গত এলাকার সব স্কুল ও কলেজসংশ্লিষ্ট এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত জনসাধারণের অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহারের জন্য জরুরি ভিত্তিতে খুলে দিতে হবে

আঞ্চলিক পরিচালকেরা অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তালিকাসংশ্লিষ্ট জেলা শিক্ষা অফিসারের মধ্যেমে সংগ্রহ করে ই-মেইলে অধিদপ্তরের পাঠাবেন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, সম্ভাব্য বন্যাদুর্গত এলাকায় অবস্থিত মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের আওতাধীন সব পর্যায়ের দপ্তর ও সরকারি-বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কর্মরত শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা স্থানীয় প্রশাসন ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সঙ্গে সম্পৃক্ত থেকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দেবেন। সম্ভাব্য বন্যায় কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হলে প্রতিষ্ঠানের নাম, প্রতিষ্ঠানের ধরন, ক্ষয়ক্ষতির ধরন ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারিত ছকে উল্লেখ করে ই–মেইলে (dsheflood2019@gmail.com) অধিদপ্তরে পাঠাতে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে আঞ্চলিক পরিচালকদের।

মন্তব্য পড়ুন 0