default-image

সিটি ইউনিভার্সিটি স্থায়ী সনদপ্রাপ্ত একটি স্বনামধন্য বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় যা গত ২০ বছর যাবৎ বাংলাদেশের শিক্ষা প্রসারে সুনামের সঙ্গে দেশের প্রয়োজনীয় বিভিন্ন ক্ষেত্রে দক্ষ কারিগর তৈরিতে অবদান রেখে আসছে। ঢাকার উত্তরার অত্যন্ত সন্নিকটে সাভারের বিরুলিয়াতে প্রায় ৪০ বিঘা জমির ওপর আধুনিক স্থাপত্য নকশা শৈলীতে নির্মিত সুপরিসর দৃষ্টিনন্দন সবুজ-শ্যামল ক্যাম্পাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। ২৫০ জনের অধিক উচ্চ শিক্ষিত, দক্ষ এবং প্রশিক্ষিত নিয়মিত শিক্ষক এবং খ্যাতিমান সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ৫০ জন অতিথি শিক্ষক বর্তমানে প্রায় আট হাজার ছাত্র-ছাত্রীদের ইঞ্জিনিয়ারিং, ব্যবসায় প্রশাসন, ইংরেজি, আইন, ফার্মেসি ও কৃষিসহ ১৮টি বিষয়ে উচ্চমানের শিক্ষা প্রদান করছেন। মানসম্মত আধুনিক শিক্ষা এবং শিক্ষা সহায়ক সকল কার্যক্রম পরিচালনা নিশ্চিত করতে সিটি ইউনিভার্সিটিতে রয়েছে অবকাঠামোগত সুবিশাল ক্যাম্পাস ভবন, যুগোপযোগী শিক্ষা পাঠ্যক্রম, ফ্রি ওয়াই-ফাইসহ ইন্টারনেট সংযোগ, সম্পূর্ণ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত শ্রেণিকক্ষ এবং আধুনিক যন্ত্রপাতি সমৃদ্ধ ল্যাবরেটরি, সেমিনার হল, বৃহৎ মিলনায়তন, সুবিশাল খেলার মাঠ এবং পর্যাপ্ত বই পুস্তকসহ সর্বশেষ প্রকাশিত জার্নাল সমৃদ্ধ আধুনিক লাইব্রেরি। আবাসিক সুবিধার জন্য রয়েছে ছাত্র-ছাত্রীদের আলাদা ৪টি সুরক্ষিত আবাসিক হল এবং যাতায়াতের সুবিধার জন্য রয়েছে পর্যাপ্ত গাড়ির ব্যবস্থা। দরিদ্র ও মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীসহ কোরআনে হাফেজ, মুক্তিযোদ্ধাদের ওয়ার্ডস, উপজাতীর সন্তান, জাতীয় পর্যায়ে খেলোয়াড়/সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সহ বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে শিক্ষার্থীদের শতভাগ পর্যন্ত বৃত্তির ব্যবস্থা রয়েছে। সিটি ইউনিভার্সিটি স্বল্প খরচে জাতির ভবিষ্যৎ কারিগর তৈরিতে প্রয়োজন ভিত্তিক শিক্ষা প্রদানে দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ।

যাত্রা শুরু

বিশ্ববিদ্যালয়টি ২০০২ সালে তাদের একাডেমিক যাত্রা শুরু করে। বিশ্ববিদ্যালয়টির পুরোনো ক্যাম্পাস ছিল ঢাকার বনানীতে। তবে ২০১৪ সালের ১ নভেম্বরে ক্যাম্পাস বনানী হতে স্থানান্তরিত হয়ে পান্থপথে বসুন্ধরা সিটির কাছেই নিয়ে আসা হয়। যেটি বিশ্ববিদ্যালয়টির নগর ক্যাম্পাস নামে পরিচিত। বিশ্ববিদ্যালয়টিতে বিভিন্ন বিষয়ে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি প্রদান করে আসছে। বিভাগ ও অনুষদ নিচে আলোচিত হয়েছে। দেশ বিদেশের স্বনামধন্য শিক্ষক ও শিক্ষিকাদের নিপুনতায় ছাত্র-ছাত্রীদের সেসব বিষয়ে পাঠদান করে আসছে বিশ্ববিদ্যালয়টি। ২০০২ সালের প্রথম বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন এবং বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়। যেখানে তারা শুরু করেছিল দুটি বিভাগের মোট ১৫ জন শিক্ষার্থী নিয়ে।

পাঠ্যক্রম

বিশ্ববিদ্যালয়টি কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এবং স্কুল অফ বিজনেস বিভাগের সঙ্গে শুরু হয়েছিল যেখানে তারা বিজ্ঞান ও প্রকৌশল (সিএসই), মাস্টার্স এবং বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এমবিএ এবং বিবিএ) ব্যাচেলর অফার করেছিলেন এবং পরবর্তীতে ইংরেজি বিভাগের যোগে বৃদ্ধি পেয়েছিলেন, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের অনুমোদনে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং ও মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং।

default-image

গ্রিন ক্যাম্পাস

ঢাকার মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি সিটি অফিস রয়েছে। স্থায়ী ক্যাম্পাসটি সাভারের খাগান, বিরুলিয়াতে অবস্থিত। সিটি ইউনিভার্সিটির স্থায়ী ক্যাম্পাস ২০১১ সালে আধুনিক স্থাপত্য নকশা শৈলীতে নির্মিত সুপরিসর দৃষ্টিনন্দন সবুজ-শ্যামল ক্যাম্পাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। এটি ‘গ্রিন ক্যাম্পাস’ হিসাবে পরিচিত। সমস্ত শ্রেণিকক্ষ পুরোপুরি ডিজিটালাইজড এবং প্রজেক্টর রয়েছে। সিটি ইউনিভার্সিটির বিভিন্ন ধরনের খেলার জন্য একটি বিশাল খেলার মাঠ রয়েছে এবং এতে সমস্ত ধরনের অফিশিয়াল এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের জন্য একটি বিশাল রুম রয়েছে। স্থায়ী ক্যাম্পাসে একটি খেলার মাঠ, ক্যাফেটেরিয়া এবং ছেলেদের হোস্টেল এবং অন্যান্য সুবিধা রয়েছে।

সিটি অফিস

শহর ক্যাম্পাসটি পান্থপথে বসুন্ধরা সিটির নিকটে অবস্থিত। এর আগের ক্যাম্পাসটি ছিল বনানীতে। ক্যাম্পাসটি ১ নভেম্বর ২০১৪ সালে বসুন্ধরা সিটির কাছে পান্থপথে স্থানান্তরিত হয়, এটি বিশ্ববিদ্যালয়টির নগর অফিস নামে পরিচিত।

বিজ্ঞাপন

গ্রন্থাগার

গ্রন্থাগারের ব্যবহারকারীর প্রয়োজন মেটাতে বিস্তৃত সংগ্রহ রয়েছে। গ্রন্থাগারটি শিক্ষার্থী, সকল অনুষদের শিক্ষকেরা এবং গবেষকদের সহায়তার জন্য পর্যাপ্ত বই পুস্তকসহ সর্বশেষ প্রকাশিত জার্নাল সমৃদ্ধ আধুনিক লাইব্রেরি। আরও রয়েছে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন জার্নালের হার্ড কপি এবং অনলাইন জার্নালের সুবিধা।

default-image

একাডেমিক প্রোগ্রাম

সিটি ইউনিভার্সিটিতে কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই), মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং (এমই), টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং (বিএসটিই), ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই), সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং (সিই), ফার্মেসি, কৃষি, ব্যবসায় প্রশাসন (বিবিএ), ইংরেজি, আইন বিষয়ে স্নাতক প্রোগ্রাম এবং এমবিএ (রেগুলার এবং এক্সিকিউটিভ), এলএলএম, এমএ ইন ইংলিশ এবং এমপিএইচ প্রোগ্রামে¯স্নাতকোত্তরসহ ৪টি অনুষদে ১৮টি প্রোগ্রাম চালু রয়েছে।

ক্লাব ও প্রকাশনা

শিক্ষা সহায়ক বিভিন্ন কার্যক্রম বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিচালিত হয়। এ জন্য বিশ্ববিদ্যালয়টিতে রয়েছে বেশ কয়েকটি ক্লাব। একই সঙ্গে বিভিন্ন প্রকাশনা প্রকাশ করা হয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। সিটি ইউনিভার্সিটিতে রয়েছে, ল’ অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন অব সিটি ইউনিভার্সিটি, টেক্সটাইল ক্লাব, কম্পিউটার ক্লাব, প্রোগ্রামিং ক্লাব, ভাষা ক্লাব, ক্রীড়া ক্লাব, টুরিস্ট ক্লাব, বিতর্ক ক্লাব, ম্যাগাজিন ক্লাব, এবং স্পন্দন ক্লাব।

default-image

খেলা মাঠ

আপনি যদি খেলাধুলা প্রিয় হন তাহলে অ্যাকাডেমিক ভবন পার করে একটু খানি সামনের দিকে অগ্রসর হন আপনার সামনে পড়বে সুবিশাল খেলার মাঠ। সবুজ ঘাসে পরিবেষ্টিত অসাধারণ সুন্দর এ মাঠটি যদি আপনার সামনে পড়ে আর আপনার যদি নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করার ক্ষমতা না থাকে তাহলে হয়তো তখন ইচ্ছে করতেই পারে একটুখানি খেলার জন্য মাঠে নেমে পরতে।

আবাসিক হল ও পরিবহন ব্যবস্থা

ছাত্র-ছাত্রীদের সুবিধার জন্য ক্যাম্পাসটির রয়েছে আলাদা আলাদা একের অধিক আবাসিক হল সুবিধা। ছাত্রদের থাকার জন্য রয়েছে ক্যাম্পাসটির প্রতিষ্ঠাতা মকবুল হোসাইন এবং ফজলুর রহমান নামে দুটো আবাসিক হল এবং ক্যানটিন সুবিধা। অন্যদিকে, ক্যাম্পাসটির ছাত্রীদের জন্যও রয়েছে মোনা হোসেন এবং ফাতিমা হল নামে দুটো আবাসিক হল।

একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ে অনাবাসিক ছাত্র-ছাত্রীদের কথা মাথায় রেখে পরিবহন সুবিধার ব্যবস্থাও রয়েছে। চাইলেই যে কেউ ঢাকার যে কোনো প্রান্ত থেকে এসে পড়াশোনা করতে পারেন। বিশ্ববিদ্যালয়টি মধ্যম আয়ের মানুষের কথা মাথায় রেখে তুলনামূলক অনেক কম খরচে শিক্ষা সেবা দিয়ে যাচ্ছে। সমমানের অন্যান্য প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের থেকে অনেকটা কম টিউশন ফিতে তাদের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

ফ্রি পড়াশোনার সুযোগ

সিটি ইউনিভার্সিটি কর্তৃপক্ষ দরিদ্র ও মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীসহ কোরআনে হাফেজ, মুক্তিযোদ্ধাদের ওয়ার্ডস, উপজাতীর সন্তান, জাতীয় পর্যায়ে খেলোয়াড়/সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বসহ বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে শিক্ষার্থীদের শতভাগ পর্যন্ত বৃত্তির ব্যবস্থা করেছে।

বিস্তারিত জানতে বা ভর্তি হতে চাইলে ভিজিট করুন বিশ্ববিদ্যালয়টির নিজস্ব ওয়েবসাইট https://www.cityuniversity.edu.bd

উচ্চশিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন