বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চীন-আসিয়ান শিক্ষা বিনিময় সপ্তাহ সচিবালয়ের পরিচালক ছেন ওয়েনেই, শিক্ষাকার্য কমিটির সহসম্পাদক উ ঝুওজাও, খায়লি বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্টি কমিটির সাধারণ সম্পাদক সং গুয়াংছিয়াং এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস প্রেসিডেন্ট ঝৌ চিয়াংচু উদ্বোধনী পর্বে অংশ নিয়েছিলেন।

default-image

এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা চীনা সংস্কৃতি অনুভব, চীনা জাতীয় রীতিনীতি অনুধাবন, বিভিন্ন সংস্কৃতি বিকাশ, গুইঝৌ প্রদেশ সম্পর্কে, বিশেষ করে দক্ষিণ-পূর্বে গুইঝৌ প্রদেশে বসবাসরত সংখ্যালঘু সম্প্রদায় মিয়াও এবং তং সংস্কৃতির অভিজ্ঞতা অর্জন করে।

অনুষ্ঠানে কর্মসূচি ছিল জাদুঘর পরিদর্শন, মিয়াও এবং তং সংস্কৃতির সম্পর্কিত জ্ঞান অর্জন, চীনা ভাষা অধ্যয়ন, বাটিকের কাজ হাতেকলমে শেখা এবং অভিজ্ঞতা অর্জন, তানঝাই ওয়ান্ডা শহরের সাংস্কৃতিক অভিজ্ঞতা অর্জন, প্রাচীনকালের কাগজ তৈরি পদ্ধতি এবং তং সম্প্রদায়ের জাতীয়তার গান শিখন।

ঝি অ্যান্ড শিং গুইঝৌ সিল্ক রোড ইয়ুথ এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামে বাংলাদেশি দুই শিক্ষার্থী অংশগ্রহণে সুযোগ পান। তারা হলেন চীনের চিয়াংশি ইউনিভার্সিটি অব ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইকোনমিকস বিশ্ববিদ্যালয়ের পিএইচডি প্রোগ্রামে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থী মোহাম্মদ ছাইয়েুদল ইসলাম এবং সদ্য স্নাতক সম্পন্ন করা শিক্ষার্থী মোহাম্মদ আকবর হোসেন।

এ ছাড়া ভারত, পাকিস্তান, নাইজেরিয়া, মরক্কো, মাদাগাস্কার, লাওস, কম্বোডিয়া, মরক্কো, মেক্সিকোসহ বিভিন্ন দেশ থেকে আগত চীনের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত ২২ জন শিক্ষার্থী এই সিল্ক রোড ইয়ুথ এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করেন।

default-image

চীনে মোট ৫৬টি সংখ্যালঘু সম্প্রদায় বসবাস করে, যা মোট জনসংখ্যার ৯ শতাংশ। তার মধ্যে গুইঝৌ প্রদেশে ১৮টি সংখ্যালঘু সম্প্রদায় বসবাস করে। এদের মধ্যে মিয়াও এবং তং অন্যতম। চীন সরকার সব সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মর্যাদা ও সমঅধিকার নিশ্চিত করেছে।

উচ্চশিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন