default-image

২৫ লাখ শিক্ষার্থীকে অনলাইন ক্লাসে যুক্ত করতে বাংলাদেশকে অনুদান দিয়েছে বিশ্বব্যাংক। করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতি থেকে উত্তরণ ও প্রাক্‌-প্রাথমিক থেকে মাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যৎ সংকট মোকাবিলায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা বৃদ্ধিতে এ অর্থ দিয়েছে বিশ্বব্যাংক। গ্লোবাল পার্টনারশিপ ফর এডুকেশনের (জিপিই) করোনা এক্সিলারেট ফাউন্ডিং থেকে ১৪ দশমিক ৮ মিলিয়ন ডলার ঋণ দিয়েছে সংস্থাটি। প্রতি ডলার ৮৫ টাকা ধরে ১২৫ কোটি ৮০ লাখ টাকা।

বাসসের খবরে বলা হয়েছে, গতকাল সোমবার রাজধানীর এনইসি সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশ সরকার ও বিশ্বব্যাংকের মধ্যে এ–সংক্রান্ত চুক্তি সই হয়। অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন ও বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর মার্সি মিয়াং টেম্বন চুক্তিতে সই করেন।

প্রকল্পের আওতায় ৩৫টি বিষয়ের ওপর ডিজিটাল কনটেন্ট তৈরির মাধ্যমে প্রাক্‌-প্রাথমিক থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত মোট ২৫ লাখ শিক্ষার্থীকে দূরশিক্ষণের মাধ্যমে শিক্ষা দেওয়া হবে। এর মধ্য ১২ লাখ ৫ হাজার বালক এবং ১২ লাখ ৯৫ হাজার।

default-image
বিজ্ঞাপন

বিশ্বব্যাংক কোভিড-১৯-এর কারণে চ্যালেঞ্জগুলো হ্রাস করতে সহায়তা প্রদান করে আসছে। মহামারি এবং অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে সম্ভাব্য পরিণতিগুলো কাটিয়ে উঠতেও সহায়তা করছে বিশ্বব্যাংক। এরই অংশ হিসেবে এ সহায়তা পেল বাংলাদেশ।

উচ্চশিক্ষা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন