default-image

আইওএস ও অ্যান্ড্রয়েডের দ্বৈরথে নিরপেক্ষ নন বিল গেটস। সে অবশ্য তেমন অবাক করা খবর নয়। একটু খোঁজখবর করলেই তাঁর অ্যান্ড্রয়েড-প্রীতির কারণ বেরিয়ে আসবে। তবু অডিও–নির্ভর কথোপকথনের অ্যাপ ক্লাবহাউসে এক সাক্ষাৎকারে সে কথাই নতুন করে স্মরণ করিয়ে দিলেন মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা।

অতীতেও অ্যান্ড্রয়েডই তাঁর প্রথম পছন্দ ছিল বলে মার্কিন সাংবাদিক অ্যান্ড্রু রস সরকিন এবং ক্লাবহাউসের সহপ্রতিষ্ঠাতা পল ডেভিডসনকে বলেছেন বিল গেটস। সঙ্গে যোগ করেছেন, এখনো তা বদলায়নি।

তাই বলে আইফোনবিরোধী নন তিনি। মাঝেমধ্যে অ্যাপলের স্মার্টফোনও হাতে তোলেন। তবে সেটা কেবল একান্ত প্রয়োজন হলে। যেমন ওই সাক্ষাৎকার গ্রহণ করা হয় ক্লাবহাউস অ্যাপে। আর আপাতত ক্লাবহাউস কেবল আইফোনেই ব্যবহার করা যায়। তবে দৈনন্দিন কাজে অ্যান্ড্রয়েডেই ভরসা রাখেন তিনি। সে ভরসার কারণও জানিয়েছেন।

উন্মুক্ত প্ল্যাটফর্ম হওয়ায় অ্যাপ নিয়ে সহজে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে পারেন তিনি। তা ছাড়া কোনো কোনো অ্যান্ড্রয়েড–নির্ভর স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ফোনে আগে থেকেই মাইক্রোসফটের অ্যাপ ইনস্টল করে দেয়, সেটা তাঁর পছন্দের একটি বড় কারণ। বন্ধুদের অনেকে যে আইফোন ব্যবহার করে, সেটাও জানিয়েছেন তিনি।

বিল গেটসের ভাষায়, ‘আমি আসলে একটি অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহার করি। যেহেতু সবকিছু সম্পর্কে হালনাগাদ থাকতে চাই, তাই প্রায়ই আইফোনও হাতে তুলি। তবে সব সময় সঙ্গে থাকে অ্যান্ড্রয়েড।’

পিসিম্যাগ ডটকমের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, মাইক্রোসফটের মুঠোফোন বিভাগ ঠিক পথে চালানোর ব্যর্থতা তাঁর জীবনের সবচেয়ে বড় ভুল বলে ২০১৯ সালে স্বীকার করেছিলেন বিল গেটস। সে সময় মোবাইল অপারেটিং সিস্টেমের বড় বাজার ধরতে ব্যর্থ হয় মাইক্রোসফট।

বিজ্ঞাপন
প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন